নাড্ডার পর কৃষকদের বঞ্চনা-নিপীড়ন নিয়ে মমতার সরকারকে হলদিয়ার রাজনৈতিক মঞ্চ থেকে তীব্র আক্রমণ করলেন নরেন্দ্র মোদী।   বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে বাংলার কৃষিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখছে গেরুয়া শিবির, এমন গুঞ্জন রাজ্য-রাজনীতিতে।


এদিন প্রধানমন্ত্রী মোদী জানিয়েছেন,' কিছুদিন আগেই কৃষকদের নাম পাঠিয়েছে রাজ্য সরকার। বাংলায় প্রায় ২৫ লক্ষ কৃষক তৃণমূল সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছেন। রাজ্যের কৃষক, গরীবদের জন্য ৪ কোটি জনধন অ্যাকাউন্ট খুলেছিল কেন্দ্র। সরাসরি ব্যাঙ্ক অ্য়াকাউন্টে টাকা দিয়ে  অ্য়াকাউন্ট খুলতে সাহায্য করেছিল কেন্দ্র। এই প্রকল্পের সুবিধা কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের মানুষ পায়নি। রাজ্য সরকার কৃষকদের এই টাকা থেকে বঞ্চিত করেছে। কৃষকদের ব্যাঙ্কের তথ্য পর্যন্ত দেয়নি রাজ্য সরকার। মা-মাটি-মানুষের সরকারের জন্য টাকা পায়নি কৃষকরা। কিন্তু ২৫ লক্ষের মধ্য়ে মাত্র ৬ হাজার কৃষকের নাম পাঠিয়েছে রাজ্য। কেন্দ্র এখনও ৬ হাজার কৃষককে টাকা পাঠাতে পারছে না।'


মোদী আরও বলেন, 'করোনাকালে পশ্চিমবঙ্গের কৃষকরা হাজার হাজার কোটি টাকা পায়নি। পিএম নিধি প্রকল্পের দেশের ১০ কোটি কৃষকরা টাকা পেয়েছেন। এরপরেই তিনি বলেন,' বাংলায় শুধু অপরাধ, হিংসার পুনরুজ্জীবন হয়েছে।' প্রসঙ্গত ভোটের দোরগড়ায় দাড়িয়ে শনিবার কৃষক সুরক্ষা অভিযানে এসে ইতিমধ্য়েই মমতাকে তোপ দেগেছেন কেন্দ্রীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। রবিবার সেই নাড্ডার কথাকে শান দিয়ে আরও অনেক ধাপ এগিয়ে গেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পরিসংখ্যান এবং তথ্যগত যুক্তির মধ্যে দিয়ে যেভাবে বাংলার কৃষকদের বঞ্চনা, নিপীড়নের কথা তুলে ধরলেন মোদী, সেখানে কৃষি আইনের বিরুদ্ধে তৃণমূলের, দিল্লীতে কৃষক আন্দোলনকারীদের পাশে থাকার আওয়াজ অনেকটাই ক্ষীয়মান, এমনই চাপান উতোর চলছে রাজনৈতিক মহলে।