মোদীর ব্রিগেড-সমাবেশ ঘিরে প্রস্তুতি তুঙ্গে। বিজেপির ব্রিগেড সমাবেশে জন জোয়ার আনতে ৩ টি ট্রেন ভাড়া করল বিজেপি। কৈলাসের পর ফের শনিবার সভাস্থলের ব্যবস্থাপনা খতিয়ে দেখতে যাবেন বিজেপি নেতারা। কলকাতার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে লাগানো হবে জায়ান্ট স্ক্রিন।

আরও পড়ুন, 'নন্দীগ্রাম থেকে আমিই লড়ব', শুভেন্দুর চ্যালেঞ্জের কথা মনে পড়েই কি গর্জে উঠলেন মমতা 

 

 


রবিবার বিজেপির ব্রিগেড সমাবেশে আসছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। মোদীর সভা উপলক্ষে  চলছে শেষমুহূর্তের প্রস্তুতি। হ্যাঙ্গার দিয়ে তৈরি হচ্ছে মূল মঞ্চ। এখানেই এলইডি দিয়ে তৈরি ভিডিও ওয়াল থাকবে। মূল মঞ্চের পাশে তৈরি হচ্ছে আরও ২টি মঞ্চ। ইতিমধ্য়েই শুক্রবার সভাস্থল ঘুরে দেখেছেন রাজ্য়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপির পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। শনিবার ফের সভাস্থলের ব্যবস্থাপনা খতিয়ে দেখতে যাবেন বিজেপি নেতারা। কলকাতার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে লাগানো হবে জায়ান্ট স্ক্রিন। সেখানে প্রধানমন্ত্রী মোদীর ভাষণ শোনানো হবে। এখানেই শেষ নয়, রবিবার বিজেপির ব্রিগেড সমাবেশে জন জোয়ার আনতে ৩ টি ট্রেন ভাড়া করল বিজেপি। ৩ টি ট্রেন বিশেষ ট্রেনের জন্য ইতিমধ্যেই গেরুয়াশিবির আর্জি জানিয়েছে আইআরসিটিসি-কে। তিনটির মধ্যে আলিপুরদুয়ার মালদহ এবং অন্যটি উত্তরদিনাজপুরের হরিশচন্দ্রপুর থেকে।

আরও পড়ুন, 'ভোট লুটে তৃণমূলের বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারেন সুদীপ জৈন', বিস্ফোরক অধীর 

 

 


 অপরদিকে, রবিবার একই দিনে একদিকে যখন রাজ্য সফরে 'দিদি'র পাড়ায় ব্রিগেডে সমাবেশ করবেন প্রধানমন্ত্রী মোদী, ঠিক তখন  উত্তরবঙ্গে থাকবেন মমতা।সেই দিনই শিলিগুড়িতে তৃণমূলের মহিলা কর্মীদের মহামিছিলে পা মেলাবেন মুখ্যমন্ত্রী। শিলিগুড়ির তৃণমূল নের্তৃত্ব জানিয়েছে, মমতার মিছিল হবে বলে তাঁরা সেভাবে নিজেদেরকে প্রস্তুত রাখতে শুরু করেছেন। তৃণমূল সুপ্রিমো যা নির্দেশ দেবেন, সেভাবেই মিছিল পরিচালনা করবে শিলিগুড়ির ঘাসফুল শিবির।রাজনৈতিক মহলের মতে, ৭ মার্চ রবিবার মোদীকে খোলা ময়দান ছেড়ে দিতে নারাজ মমতা। তাই ওই দিন কলকাতায় কর্মসূচি করে সরাসরি সঙ্ঘাতে না গিয়ে মোদীকেও পাল্টা জবাব দেওয়ার কর্মসূচির পরিকল্পনা নিয়েছেন মমতা। তৃণমূল সূত্রের খবর, সোমবার ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষেও কলকাতায় আরও এখটি মিছিল করা হবে।