রাত পেরোলেই রবিবারে বামেদের ব্রিগেড। আর সেই জন্যই প্রস্তুতি তুঙ্গে। বামেদের ব্রিগেডে জন্য বাড়ি বাড়িতে তৈরি হচ্ছে ১০ লক্ষের খাবার। তবে এতদিন ধরে ব্রিগেডের আগে তরুণদের মন জয়ে পারফর্ম হচ্ছে বাজি নাচ। এই নাচের পোশাকি নাম ফ্ল্য়াশমব। তবে এসবকেও ছাড়িয়ে যাবে, যদি আসেন বুদ্ধদেব। কারণ ইতিমধ্যেই শারীরিক অসুস্থতা থাকা সত্ত্বেও ব্রিগেডে আসার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। 

আরও পড়ুন, ব্রিগেডের সভার আগেও অধরা আসন নিয়ে রফা, কংগ্রেসের দিকে তাকিয়ে ২৮-এর সমাবেশে আইএসএফ 

 

 


২০২১ এর নির্বাচনের আগে বামেদের ভোট প্রচারের সবথেকে বড় সুযোগ ব্রিগেডের সভা। শক্তি দেখাতে কংগ্রেসও চাইছে সব জেলা থেকে কর্মীদের হাজির করতে। থাকবে আব্বাস সিদ্দিকির ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের সমর্থকরাও। গুজরাট থেকেও আসছেন পরিযায়ী শ্রমিক। এত মানুষকে জায়গা দিতে কংগ্রেসের তরফে ইতিমধ্য়েই হাওড়া, কলকাতার একাধিক হোটেল, ধর্মশালা বুক করা হয়েছে। বহু মানুষ আজই কলকাতায় পৌছে যাবেন। সিপিএম এর কলকাতা জেলা সম্পাদক কল্লোল লাহিড়ি বললেন, ব্রিগেডের মাঠে কিছু ক্যাম্প করে তাঁদের থাকার বন্দোবস্ত করা হচ্ছে। ব্রিগেডের জন্য ১০ লক্ষ খাবারও প্রস্তুত হচ্ছে বাড়িতে-বাড়িতে।বামেদের ব্রিগেডের মেনু, রুটি-তরকারি। তবে এখানেই শেষ নয়, মন জয় করতেও এবার বামেরা আয়োজন করেছে বাজি নাচ। এই নাচের পোশাকি নাম ফ্ল্য়াশমব। গানটির স্রষ্ঠা নাট্য নির্দেশক জয়রাজ ভট্টাচার্য। গেয়েছেন অর্ক মুখোপাধ্যায়। ব্রিগেডের আগে এই তালেই শহরের বিভিন্ন প্রান্তে ২২ জায়গায় পারফর্ম করছেন শিল্পীরা।

 

 

আরও পড়ুন, 'বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় এলে ১ দফায় ভোট', মমতাকে নিশানা দিলীপ-শমিকের 

ওদিকে, বিগ্রেডে আসতে চান বুদ্ধদেব। তবে বাধ সাধছে দীর্ঘ দিনের শারীরিক অসুস্থতা। তবে এবার শুধু চিকিৎসকদের অনুমতি মিললেই কেল্লাফতে। বামেদের বিগ্রেডে তাহলে আসতে পারবেন রাজ্য়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। সূত্রের খবর, দলের কাছে বিগ্রেড সমাবেশে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করে বার্তা পাঠিয়েছেন রাজ্য়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। অসুস্থতার কারণে শয্যাশায়ী হলেও বিগ্রেডে আসতে চান তিনি। এদিকে রাজ্য সিপিএম নের্তৃত্বও চায়, অল্প সময়ের জন্য হলেও সমাবেশে আসুন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। সিপিএমের ছাত্র এবং যুব সংগঠনের নেতা-ক্রমীরা দলের কাছে আবেদন জানিয়েছেন, বিগ্রেডে বুদ্ধদেবের ভার্চুয়াল উপস্থিতির বন্দোবস্ত করা হোক। জানা গিয়েছিল, ব্রিগেডে লিখিত বার্তা পাঠাবেন তিনি। কিন্তু শুক্রবারই বুদ্বদেব নিজেই সমাবেশে আসার ইচ্ছে প্রকাশ করতে খুশির প্লাবন বামশিবিরে।