কয়লা পাচারের পরেই এবার কোকেন কাণ্ডে নয়া মোড়।কোকেন সহ বিজেপি নেত্রী ধরা পড়তেই শিরোণামে ক্রমশ সরগরম রাকেশ সিং। বিশেষ করে রাকেশ সিং গ্রেফতার হতেই চড়ল রাজনৈতিক পারদ। 'বাবা রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের শিকার', একদিকে তাঁর মেয়ে বলেছেন। অপরদিকে রাকেশকে নাটকীয়ভাবে লালবাজারের গোয়েন্দারা টেনে নিয়ে যেতেই সরব রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এদিকে  রাকেশ সিংয়ের দুই ছেলেকে বুধবার আলিপুর কোটে নিয়ে আসা হয়েছে। প্রবেশের সময়  প্রত্যেকের  মুখে পুলিশের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মন্তব্য।

আরও পড়ুন, 'মোদি এলে ধ্বংস, দিদি এলে সৃষ্টি', বুধবার মমতার সভার আগে পোস্টার পড়ল চুঁচুড়ার মাঠে  


প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কোকেন সহ গ্রেফতার হন বিজেপি নেত্রী পামেলা গোস্বামী। এর পরেপরেই পামেলা আদালতে কৈলাস বিজয়বর্গীয় ঘনিষ্ঠ রাকেশ সিংকে এই ঘটনায় দায়ী করেন। রাকেশ সিং এর নাম প্রকাশ্যে আসতেই ঘটনার চব্বিশ ঘন্টার মধ্য়েই রাকেশ সিংকে গ্রেফতার করে লালবাজারের গোয়েন্দারা টেনে নিয়ে যান। এদিকে আগেও নানা ঘটনায় একাধিকবার শিরোণামে এসেছেন রাকেশ সিং। তবে ভোটের একেবারে দোরগড়ায় রাকেশ ইস্যু নিয়ে কিছুটা চাপের মুখে বিজেপি। ইতিমধ্যেই সরব হয়েছেন দিলীপ। তবে একদিকে কয়লা পাচার-গরু পাচার কাণ্ডে মোদী থেকে শুরু করে অমিত শাহ, দিলীপ, কৈলাস সহ বিজেপীর শীর্ষ নের্তৃত্ব বারবার সিবিআই-ইডি-র হুঁশিয়ারি দিয়ে এসেছেন। আর তারপর পরেই আচমকা উঠে এল কোকেন সহ বিজেপি নেত্রীর এই বড়সড় কাণ্ড। আর তা ঠিক অভিষেকের বাড়িতে সিবিআই নোটিশ পাঠানোর আশেপাশেই ঘটনাটা ঘটেছে।ভোটের নির্ঘন্ট প্রকাশ হওয়ার আগেই রাজ্যের শাসক দল এবং বিরোধীরা একে অপরের বিরুদ্ধে নেমেছেন বলে চাপান উতোর রাজনৈতিক মহলের।

আরও পড়ুন, Election Live Update- দলে 'অপমানিত-অত্যাচারিত' বলার পর শুভেন্দু-বাবুলের সঙ্গে আড্ডায় কুণাল, জল কোন দ 

তবে হাল ছাড়েননি রাকেশ কন্যা সিমরান। উল্লেখ্য, বুধবার ভোর পৌনে ৫ টা নাগাদ লালবাজারে ঢোকানো হয় রাকেশকে।  মঙ্গলবার রাতে পূর্ব বর্ধমানের গলসিতে নাকা চেকিংয়ে ধরা পড়েন রাকেশ। গ্রেফতার করা হয় তাঁর দুই ছেলেকেও। রাকেশ সিংয়ের দুই ছেলেকে আলিপুর কোটে নিয়ে আসা হয়েছে। প্রবশের পথে তাঁরা বলেছে, 'পুলিশ নিজেদের ক্ষমতার অপব্যবহার করছে।' এই ঘটনায় রাকেশ কন্যা সিমরান সংবাদমাধ্যেমর সামনে মুখ খোলেন, বলেন,' 'বাবা রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের শিকার। ভোটের আগে বদণাম করার চেষ্টা করা হচ্ছে।' বাবা এবং দুই ভাইয়ের সুবিচারের জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন রাকেশ।