'আমার কোনও ছেলের কেশ স্পর্শ করার ক্ষমতা কারও নেই' সৌমেন্দুর গাড়ির উপর হামলা হতেই গর্জে উঠলেন শিশির অধিকারী। এদিন এরইসঙ্গে মমতাকে ২০১১ এর  বাম-বিদায়ের কথা মনে করে চূড়ান্ত কটাক্ষ করলেন শুভেন্দু বাবা।

আরও পড়ুন, কে প্রলয় পাল,যাকে ফোন করে সাহায্য চাইলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, জানুন নন্দীগ্রামের বিজেপি নেতাকে  

 

 


শিশির অধিকারী এদিন বলেছেন, 'সৌমেন্দু সহ আমার কোনও ছেলের কেশ স্পর্শ করার ক্ষমতা কারও নেই। আমরাও জানি কীভাবে কড়া ডোজ দিতে হয়। চব্বিশ ঘন্টাও লাগবে না। ২ ঘন্টায় ঠান্ডা করে দেব। এদিন গদ্দার-বেইমান বলেছে। বলেছিল আমরা নাকি পারি না। আমাদের ফোন রেকর্ড করেছে। আগামী ২ দিন ছল চাতুরি করবে।' প্রসঙ্গত, শিশির পুত্র সৌমেন্দুর গাড়ির উপর  হামলা চালিয়েছে তৃণমূল আশ্রীত দুষ্কৃতীরা, এমনটাই তাঁর অভিযোগ। তৃণমূলের রিগিং থামাতে গিয়েছিলেন সৌমেন্দু। সেই আক্রোশেই এই হামলা এমনটাই দাবি করেছেন সদ্য দল বদলানো বিজেপি নেতা। তাঁর গাড়ির সমস্ত কাচ ভেঙে চুরমার হয়ে গিয়েছে। গাড়ির প্রবীন চালককেও ছাড়া হয়নি।

 

 

আরও পড়ুন, ‘গুলি করে খতম করে দেব’, বুথের বাইরে বিজেপি কর্মীকে হুমকি তৃণমূল প্রার্থীর  

 

অপরদিকে, এদিন রাজ্যে প্রথম দফা ভোটের শুরুতে শিশি অধিকারী আরও বলেছেন, ২০১১ সালে যখন ব্রামফন্ট হেরে যাচ্ছেন। ভোটের পর তৎকালীন অর্থমন্ত্রী অসীম দাশগুপ্ত আমাকে বলেছিলেন, বামেরা ২৫৫ আসনে জিতবে। আমি তাঁর পাশে বসে প্রণব মুখোপাধ্য়ায়কে ফোন করে বলেছিলেম, সিপিএম গোল খেয়ে গিয়েছে। আজ বলছি দিদিমণি গোল খেয়ে গিয়েছে।'