একুশের নির্বাচন বিজেপি-মমতা। নাকি মমতা বনাম শুভেন্দু। কোন জায়গায় দাঁড়িয়ে রয়েছে রাজনৈতিক লড়াই? দলত্যাগের পর থেকেই মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে একাযোগে আক্রমণ করে চলেছেন শুভেন্দু অধিকারী। তারপর, মুখ্যমন্ত্রী নিজেকে নন্দীগ্রামের প্রার্থী ঘোষণা করায় আক্রমণের সুর আরও চড়া করেছেন শুভেন্দু। বৃহস্পতিবার পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুর থেকেও মমতাকে তীব্র কটাক্ষ করলেন শুভেন্দু।

আরও পড়ুন-দল গড়লেন ফুরফুরা শরিফের পিরজাদা,নির্বাচনী লঞ্চ করলেন ইন্ডিয়ান সেকুউলার ফ্রন্টের

দলত্যাগের আগে নন্দীগ্রামের কথা মনে পড়েছে। নন্দীগ্রামে দাঁড়িয়েই এমনই সুর চড়িয়েছিলেন শুভেন্দু। সেখান থেকে কিছুটা আভাস পাওয়া গিয়েছিল। এবার দলত্যাগের পর বিজেপিতে যোগদান করেই নন্দীগ্রাম-নেতাই-জঙ্গলমহল-মাওবাদী নিয়ে মমতাকে একের পর এক আক্রমণ করেছেন তিনি। আক্রমণ আরও ঝাঁঝালো হয়েছে মমতা নিজেকে নন্দীগ্রামের প্রার্থী ঘোষণা করার পর থেকেই। তারপর থেকেই প্রায় প্রতিটি সভা থেকেই মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করে চলেছেন শুভেন্দু। কেশপুরের সভা থেকে তা অন্যথা হল না। 

আরও পড়ুন-গাড়িতে ধাক্কা লেগে নয়ানজুলিতে পড়ল বাস, অল্পের জন্য প্রাণরক্ষা যাত্রীদের

এদিন কেশপুরের সভা থেকে শুভেন্দু বলেন, ''এই কেশপুরে বলুন একশো দিনের কত চুরি হচ্ছে, সামগ্রী কারা সরবরাহ করে। ওঁনাদের নেত্রী কথায় কথায় নন্দীগ্রাম বলেন, কেশপুর বলেন, গড়বেতা বলেন, পাঁচ বছর আসেনি কোনওদিন। কেশপুরে ১১-২০ সাল পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রীকে দেখেছেন। ভোট নিয়েই ভোকাট্টা। এমএলএ-কে দেখেছেন। তোমার দেখা নাই রে তোমার দেখা নাই''। মমতাকে নিশানা করে কটাক্ষ শুভেন্দুর।