নেতাজীর জন্মবার্ষিকীতে পাশাপাশি দেখা গিয়েছিল রাজ্যপাল-মমতা-মোদীকে। জাতীয় গ্রন্থাগার ঘুরে দেখার সময় মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতেও দেখা গিয়েছিল রাজ্যপালকে। কিন্তু ঠিক তার পরের দিনই উল্টো ঘটনা ছবি দেখা গেল। বাংলায় আগামী বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে রাজ্য প্রশাসনকে ঘুরপথে খোঁচা দিলেন রাজ্যপাল। এই প্রজাতন্ত্র দিবসে বাংলার ভোট অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করার আহ্বান জানালেন তিনি।

আরও পড়ুন-'নেতাজীকে নিয়ে একশবার রাজনীতি করব, হিম্মত থাকলে আটকে দিক', ফের বিস্ফোরক দিলীপ ঘোষ

মঙ্গলবার প্রজাতন্ত্র দিবস। তার আগে রাজ্যে অবাধ ও শান্তিপূর্ণ ভোট করতে আহ্বান জানালেন রাজ্যপাল। গণতন্ত্র ফুটে উঠলে রাজ্য তখনই উজ্জ্বল হয়। ট্যুইট করে মুখ্যমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্র দফতর ও রাজ্য পুলিশকে ট্যাগ করেছেন রাজ্যপাল। ট্যুইটে তিনি লিখেছেন, ''আমাদের রাজ্য তখনই উজ্জ্বল হবে, যখন গণতন্ত্র প্রস্ফুটিত হবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের প্রশাসন, স্বরাষ্ট্রদফতর ও রাজ্য পুলিশকে রাজনৈতিকভাবে নিরপেক্ষ হতে হবে''।

 

 

 

আরও পড়ুন-বৃদ্ধ বাবা-মা, অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী নিয়ে দিশেহারা অবস্থা, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন যুবক

ট্যুইটে তিনি আরও লেখেন, ''আসুন এই প্রজাতন্ত্র দিবসে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হই।  রাজ্যে আসন্ন নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণ হবে।  হিংসা থেকে দূরে থাকবে''। প্রসঙ্গত, বাংলায় একুশের নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে তৎপর হয়েছে নির্বাচন কমিশন। জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠকে সেই বার্তাই স্পষ্ট করেছেন নির্বাচনী আধিকারিকরা। এবার প্রজাতন্ত্র দিবসের নির্বাচনের প্রাক্কালে রাজ্য প্রশাসনকে সেই কথাই ফের স্মরণ করিয়ে দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।