হেস্টিংসে বিজেপির নতুন সদর দফতরে দলে আগত নবাগতদের জন্য সংবর্ধনা চলাকালীন বিক্ষোভ দেখায় তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা। বিজেপি পার্টি অফিসের সামনে গন্ডগোল শুরু হয়। সদ্য দলত্য়াগী সাংসদ সুনীল মণ্ডলের গাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখায় তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। ঘটনায় সাংসদ সুনীল মণ্ডলের গাড়িতে হামলার অভিযোগ তুলল বিজেপি। তৃণমূল নেতা কর্মীরা হামলা চালায় বলে অভিযোগ। এই অভিযোগ তুলে অমিত শাহকে ফোন করলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

আরও পড়ুন-'তৃণমূলের সঙ্গে ২১ বছর কাটিয়েছি, ভেবে লজ্জা হচ্ছে', বিজেপির নবাগতদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তোপ শুভেন্দু


শনিবার বিজেপির দফতরে নবাগতদের সংববর্ধনা অনুষ্ঠান চলাকালীন তৃণমূলের বিক্ষোভের সমস্ত ঘটনা জানিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানিয়ে চিঠি লিখেছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। এমনকি, সদ্য তৃণমূল দল ছেড়ে আসা সাংসদ সুনীল মণ্ডলের গাড়ির সামনে শুয়ে পড়ে বিক্ষোভকারীরা। গাড়িতে হামলা চাালনো হয় বলে অভিযোগ। চিঠি লেখার পাশাপাশি, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ফোনও করেন কৈলাস। সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গের আইন-শৃঙ্খলা যে ভেঙে পড়েছে, এটাই তার প্রমাণ।  

আরও পড়ুন-কোভিডে কলকাতার হাসপাতালে আরও এক চিকিৎসকের মৃত্যু, বছর শেষে শোকের ছায়া শহরে

ডায়মন্ড হারবারে বিজেপির কনভয়ে হামলার ঘটনা ঘটেছিল। সেই ঘটনার সঙ্গে সুনীল মণ্ডলের গাড়িতেও হামলার অভিযোগ তুলেছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। এদিন বিজেপির দফতরে উপস্থিত ছিলেন শুভেন্দু অধিকারীও। নবাগতদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নরেন্দ্র মোদী ও দিলীপ ঘোষের ভূয়শী প্রশংসা করেন তিনি। তৃণমূল থেকে যাঁরা বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন। তাঁদের নিয়ে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বিজেপি। সেই সময়ই বিজেপির দফতরে গিয়ে বিক্ষোভ দেকানো হয়। দুই পক্ষের বচসার জেরে তুমুল উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়।