২৯১টি আসনের প্রার্থী ঘোষণা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তালিকা অনুযায়ী, শুধুমাত্র নন্দীগ্রাম থেকেই প্রার্থী হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। কিন্তু, এদিনের ভোটগ্রহণের পর মমতা অভিযোগ করেছেন, 'এত খারাপ ভোট' তিনি কখনও দেখেননি। তাহলে কি নন্দীগ্রাম নিয়ে আত্মবিশ্বাসী নন মমতা? অন্য কোনও আসন থেকে দাঁড়াতে পারেন তিনি? ছয় দফা ভোটগ্রহণ এখনও বাকি। বৃহস্পতিবার, উলুবেড়িয়ার সভা থেকে এই বিষয়ে 'গুঞ্জন' ভাসিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

এদিন, উলুবেরিয়ার সভা থেকে নরেন্দ্র মোদী বরাল গ্রামের ঘটনার উল্লেখ করে বলেন, এর থেকে বোঝা গিয়েছে মমতা তাঁর পরাজয় মেনে নিয়েছেন। বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে নরেন্দ্র মোদী বলেন, 'আপনি আরেকটি আসন থেকে মনোনয়ন জমা দেবেন, এই গুঞ্জন কি সত্যি দিদি? প্রথমে আপনি নন্দীগ্রামে গিয়েছিলেন। সেখানকার মানুষ আপনাকে জবাব দিয়ে দিয়েছে। অন্য কোথাও গেলেও বাংলার মানুষ একইরকম ভাবে জবাব দিতে প্রস্তুত।'

আরও পড়ুন - নিশানায় কমিশন থেকে অমিত শাহ - মুক্তি পেয়েই হুঙ্কার ছাড়লেন মমতা, অট্টহাসি শুভেন্দুর

আরও পড়ুন - নন্দীগ্রামে মমতা কি হারের ভয় পাচ্ছেন - ভরসার তালিকায় কেন এখন রাজ্যপাল, আদালত আর সুদীপ জৈন

আরও পড়ুন - বয়াল গ্রামে বোতল-বন্দি মমতা, ফুটবলের স্ট্র্যাটেজিতেই কি মাত করলেন শুভেন্দু

তবে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্বিঘ্নে নন্দীগ্রাম আসন থেকে জিতছেন, এমনটাই দাবি করা হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে। তাই পশ্চিমবঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর অন্য কোনও আসন থেকে লড়াইয়ের কোনও প্রশ্নই ওঠে না, এমনটাই বলেছে তারা।

এদিন মোদী আরও বলেন, মমতা তাঁকে বাংলায় পর্যটক বলেন, বহিরাগত বলেন। তিনি অনুপ্রবেশকারীদের আপন বলে মনে করেন, আর ভারত মাতার সন্তানদের বহিরাগত বলেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেশের মানুষেকর মধ্যে ভেদাভেদ আনছেন, সংবিধানকে অপমান করছেন - উলুবেড়িয়ার সভা থেকে অভিযোগ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি আরও বলেন, বাংলার মানুষ মমতাকে সরানোর জন্য মনস্থির করে ফেলেছে। নন্দীগ্রামের মানুষ এদিন এই স্বপ্ন পূরণ করেছে, বলে দাবি করেন মোদী। এই ভোট বাংলায় নবজাগরণের পথ সুগম করবে, এমনটাও বলেন তিনি।