বর্ষশেষে জাকিয়ে পড়েছে ঠাণ্ডা। বছর শেষের এই মুহূর্ত তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করছে সাধারণ মানুষ। উৎসবের সময়ে শীতের আনন্দ দুই একসঙ্গে উপভোগ করতে ছোট-বড় পিকনিক হচ্ছে শহরের আনাচে-কানাচে। বর্ষশেষের এই আনন্দ উপভোগ করতে এসেই ঘটে চরম মর্মান্তিক ঘটনা। চন্দ্রকোনার কাতারডাঙ্গা গ্রামে লাগোয়া কেঠিয়া খাল। সেখানে প্রতি বছরেই ছোটখাটো দল পিকনিক করতে আসেন। শনিবার সেখানে পিকনিক করতে আসেন ৮ যুবক। এরমধ্যে ৩ জন যুবক নিখোঁজ হয়।

আরও পড়ুন- বরফ পড়েছে পুরুলিয়ায়, দাবি বেগুনকোদরের বাসিন্দাদের, রইল ছবি

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র চাঞ্চল্য চন্দ্রকোনায়। নিখোঁজ হওয়া ৩ যুবকের নাম অর্ক রায়, শোভন কান্তি রায়, শুভজিৎ মঙ্গল। এই তিন যুবকের বাড়ি ঘটনাস্থল থেকে এক কিলোমিটার দূরে জাড়া গ্রামে। শনিবার ঘটনা ঘটার পর থেকেই খোঁজাখুঁজির পর খালের ধার থেকে উদ্ধার হয় নিখোঁজ যুবকদের জামা কাপড়। এলাকার বাসিন্দারা খালের জলে নেমে দীর্ঘক্ষন খোঁজাখুঁজির পরেও কোনও হদিশ পাননি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় চন্দ্রকোনা টাউন থানার পুলিশ। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, স্নান করতে নেমে কোনও ভাবে খালের জলে তলিয়ে যায় ওই তিন যুবক। শনিবার রাতে ঘটনাস্থলে আলোর ব্যবস্থা করে ডুবুরি নামানো হয়। 

আরও পড়ুন- পৌষমেলায় বিভ্রান্তি, ব্যবসায়ী সমিতির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের

সারা রাতে দফায় দফায় কেঠিয়াখালে তল্লাশি চালালেও কোনও কিছুই উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি । এরপর রবিবার সকাল থেকেই ডুবুরি এনে তল্লাশি  শুরু করেছে ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট টিম ও চন্দ্রকোনা টাউন থানার পুলিশ। এরপর রবিবার সকাল সাড়ে আটনা নাগাদ উদ্ধার হয় একজন যুবকের মৃতদেহ। ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে সেই দেহ। তবে এখনও যুবকের পরিচয়া সংক্রান্ত বিষয়ে কিছুই জানা যায়নি। এই মৃত্যু কিভাবে হল তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এমন মর্মান্তিক ঘটনায় চন্দ্রকোনা এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।