লকডাউনেও ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। ক্যানসারের চিকিৎসা চলাকালীন করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ল বৃদ্ধের। পরিবারের লোক-সহ ৩৫ জনকে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে কোয়ারেন্টাইনে। বাঁশের ব্য়ারিকেড দিয়ে রাতারাতি এলাকা ঘিরে ফেলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। আতঙ্ক ছড়িয়েছে মুর্শিদাবাদের সালারে।

আরও পড়ুন: মাস্ক না পরলেই ধমক, পায়ে হেঁটেই এলাকা দাপালেন পুরুলিয়ার জেলাশাসক

তিন ছেলে কর্মসূত্রে বাইরে থাকেন। মুর্শিদাবাদের সালারে আর এক ছেলের সঙ্গে থাকেন ওই বৃদ্ধ। একই বাড়িতে থাকেন পরিবারের আরও ১৪ জন সদস্য। স্থানীয় সূত্রে খবর, কয়েক মাস আগে ওই বৃদ্ধের ক্যানসার ধরা পড়ে। তখন চিকিৎসার জন্য তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল কলকাতায়। কিছুটা সুস্থ হওয়ার পর ফিরেও আসে। দিন কয়েক আগে আচমকাই ফের শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। যথারীতি ওই বৃদ্ধকে ফের নিয়ে যাওয়া হয় কলকাতায়। শহরের একটি ক্যানসার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল ওই বৃদ্ধকে। কিন্তু উপসর্গ সন্দেহজনক হওয়ার চিকিৎসকরা আর ঝুঁকি নেননি। রোগীকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় এম আর বাঙ্গুর হাসপাতালে। লালারস বা সোয়াব পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। 

আরও পড়ুন: করোনা পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন মুখ্যমন্ত্রী, হাওড়ায় প্রশাসনিক বৈঠক ফিরহাদের

আরও পড়ুন: কালিয়াগঞ্জে করোনা গুজবে আতঙ্ক, পুলিশের জালে দুই যুবক

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগে কেমো নেওয়ার জন্য কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ক্যানসার আক্রান্ত এক মহিলা। হাওড়ার বাগনানের বাসিন্দা তিনি।  কেমোর দেওয়ার আগে রুটিন পরীক্ষার জন্য রোগীর লালারস বা সোয়াব সংগ্রহ করেন চিকিৎসকরা। জানা যায়, ওই মহিলা করোনায় আক্রান্ত। তাঁকেও পাঠিয়ে দেওয়া হয় এম আর বাঙ্গুর হাসপাতালে।