করোনা ভাইরাসের হাত বাঁচতে মাস্ক পরা ছাড়া উপায় নেই। কিন্তু দাম যে আকাশছোঁয়া! কাপড়ের মাস্ক তৈরি করে বিনা পয়সায় এলাকায় বিলি করলেন এক দম্পতি। দক্ষিণ ২৪ পরগণার গড়িয়ার ঘটনা।

আরও পড়ুন: জমায়েত এড়াতে মেয়ের অন্নপ্রশাসন স্থগিত, করোনা আতঙ্কে নজির গড়লেন রায়গঞ্জের দম্পতি

স্ত্রী ফ্য়াশান ডিজাইনার, আর স্বামী গানবাজনার সঙ্গে যুক্ত। করোনা আতঙ্কে কাজকর্ম লাটে উঠেছে দু'জনেরই। আরও অনেকেই মতোই এখন বাড়িতে কার্যত বন্দিদশায় দিন কাটাচ্ছেন গড়িয়ার মহামায়াতলার বাসিন্দা সুকান্ত সরকার ও তাঁর স্ত্রী গার্গী। তাঁদের একমাত্র মেয়ের বয়স সাড়ে তিন বছর। দিন কয়েক আগে দোকানে মাস্ক কিনতে গিয়েছিলেন ওই দম্পতি। সুকান্ত সরকারের দাবি, ২০ টাকা মাস্ক এখন বাজারে বিক্রি হচ্ছে তিনগুণ বেশি দামে। তাই বাড়িতে নিজেরাই কাপড় দিয়ে মাস্ক তৈরি করার সিদ্ধান্ত নেন। সেইমতো বাজার থেকে কিনে আনেন কাপড়। এরপর রাত জেগে ৪০টি মাস্ক তৈরি করে ফেলেন সুকান্ত ও তাঁর স্ত্রী। নিজেরা তো ব্যবহার করছেনই, রীতিমতো সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়ে বিনামূল্য মাস্ক বিলিও করেছেন গড়িয়া মোড়ে। 

আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কে ডেকে আনছেন বড় সর্বনাশ, না-খেতে পেয়ে কাটাতে হতে পারে দিন

যতদিন যাচ্ছে, এ রাজ্যে করোনার আতঙ্ক ততই বাড়ছে। চাহিদা এতটাই, বাজার থেকে কার্যত উধাও হয়ে দিয়েছে মাস্ক। কোথা কোথাও যদিবা পাওয়া যাচ্ছে, চড়া দামের কারণে অনেকেই কিনতে পারছেন না। চলছে দেদার কালোবাজারিও। এই পরিস্থিতিতে মাস্কের চাহিদা মেটাতে যাঁরা সেলাইয়ের কাজ করেন, তাঁদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন সুকান্ত সরকার। প্রয়োজনে মাস্ক তৈরির পদ্ধতিও শিখিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।