আশিস মণ্ডল, বীরভূম: বীরভূমে ফের করোনা সংক্রমণের শিকার হলেন স্বাস্থ্যকর্মী। এবার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এল রামপুরহাট হাসপাতালের কর্মরত এক কম্পিউটার অপারেটরের। আক্রান্তকে ভর্তি করা হয়েছে কোভিড হাসপাতালে। কোয়ারেন্টাইনে সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে পরিবারের সদস্যদের।  বাঁশের ব্যারিকেড করে এলাকা ঘিরে ফেলেছে প্রশাসন।

আরও পড়ুন: চুলেও এবার করোনাভাইরাস, সংক্রমণ ঠেকাতে নয়া দিশা দেখাচ্ছেন হাওড়ার রবিন

বীরভূম জেলায় এখনও পর্যন্ত দুজন স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হলেন। এর আগে ময়ূরেশ্বর ১ নম্বর ব্লকের রাতমা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের নার্স আক্রান্ত হয়েছিলেন। চিকিৎসায় সেরে উঠেছেন তিনি। আর এবার সংক্রমিত হলেন রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজের অ্যাকাউন্টস সেকশনের কম্পিউটার অপারেটর। অ্যাকাউন্টস সেকশনটি আবার খোদ হাসপাতালে এমএসভিপি ও ডেপুটি সুপারের ঘরের একেবারেই লাগোয়া। ফলে আতঙ্ক আরও বেড়েছে। ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর অ্যাকউন্স সেকশনটি সিল করে দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। স্যানিটাইজেশনের পর ফের বিভাগটি খোলা হবে বলে জানা গিয়েছে। 

আরও পড়ুন: দেশকে ভালবেসে নিলেন জীবনের ঝুঁকি, করোনার প্রতিষেধকের প্রয়োগে ডাক পেলেন এই স্কুলশিক্ষক

রামপুরহাট হাসপাতালে যে কর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, তিনি শহরের ১১ নম্বর ওয়ার্ডে থাকেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়ি থেকে পরিবারের ১৩ জন কোয়ারেন্টাইন সেন্টার নিয়ে গিয়েছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। বাঁশ ব্যারিকেড দিয়ে  বাড়ি ও লাগোয়া এলাকাকে ঘিরে দেওয়া  হয়েছে। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে খবর, এখনও পর্যন্ত রামপুরহাট স্বাস্থ্য জেলা হাসপাতালে ৬ জন এবং বীরভূম জেলা হাসপাতালে ৪ জন নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। পুলিশ প্রশাসন এবং স্বাস্থ্য দপ্তর সেই সমস্ত এলাকা তৎপরতার সঙ্গে সিল করে দিয়েছে। ওই সমস্ত এলাকায় কঠোর ভাবে লকডাউন পালন করা হবে বলে জানানো হয়েছে।