লকডাউনের বাজারে রেশন নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছে আমজনতার। কোথাও কম রেশন দেওয়া, তো কোথাও আবার নিম্নমানের সামগ্রী সরবরাহের অভিযোগ উঠেছে। দুর্নীতির অভিযোগে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন গ্রাহকরা। তাতেই কি ঘটল বিপত্তি? মানসিক অবসাদে শেষপর্যন্ত আত্মহত্যা করলেন রেশন ডিলার। ঘটনাটি ঘটেছে পুরুলিয়ায়।

আরও পড়ুন: রাজনীতি মুক্ত হোক রাজ্য়ের রেশন ব্যবস্থা, ফের টুইট করে সরব হলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর

মৃতের নাম ভোলানাথ রায়। বাড়ি পুরুলিয়ার মানবাজারের রাজনোয়াগড় গ্রামে।  দীর্ঘদিন ধরেই এলাকায় রেশন দোকান চালাতেন তিনি। ষাটোর্ধ্ব বয়সে আক্রান্ত হন ক্যানসারে। তবে শারীরিক অসুস্থতা সত্ত্বেও নিজেই দোকানে বসতেন ভোলানাথ। পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, গত কয়েক দিন ধরে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে রেশন দোকানে বিক্ষোভের খবরে রীতিমতো ভেঙে পড়েছিলেন ওই প্রৌঢ়া। স্ত্রীকে সেকথা জানিয়েওছিলেন তিনি। শুক্রবার দুপুরে বাড়ির লাগোয়া কুয়োতে গলার দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন রেশন ডিলার ভোলানাথ রায়।

আরও পড়ুন: রেশন নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় 'ভুল তথ্য' পোস্ট, গ্রেফতার বিজেপি-র সহ-সভাপতি

উল্লেখ্য, লকডাউনের সময়ে বিপিএল কার্ড হোল্ডারদের বিনামূল্য় রেশন দিতে দিয়ে বিড়ম্বনায় পড়েছে সরকার। যতদিন যাচ্ছে, সাধারণ মানুষের ক্ষোভ বাড়ছে। রেশন কারচুরি অভিযোগে চলছে বিক্ষোভ-অবরোধ, রেহাই পাচ্ছেন না ডিলাররাও। দিন কয়েক আগে মুর্শিদাবাদের সালারে স্বাস্থ্য বিধি তোয়াক্কা না করে ডিলারের বাড়িতে চড়াও হন স্থানীয় বাসিন্দারা। বাড়ির সামনে আগুন জ্বালানো হয়। হুগলির শ্রীরামপুরে আবার কম রেশন দেওয়ার অভিযোগে ডিলার পিছমোড়া করে বেঁধে রাখা হয় দোকানে।