গণপিটুনির ঘটনা রুখতে নতুন আইন পাশ হয়েছে রাজ্য বিধানসভায়। সেই আইনে কড়া শাস্তির বিধানও রয়েছে। কিন্তু কড়া শাস্তির ভয়ও যে মানুষের মনে কোনও রেখাপাত করেনি, ফের তা প্রমাণিত হল। এবার গণপিটুনির জেরে আসানসোলে মৃত্যু হল এক যুবকের।

পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছয় যে পুলিশ এসে যুবককে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করলেও গাড়ি থেকে নামিয়ে তাঁকে ফের মারধর করা হয়। ফের পুলিশ ওই যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। 

আরও পড়ুুন- হতাশ করল পেহলু খান হত্যার রায়, প্রমাণের অভাবে জগন্নাথ আইন ব্যবস্থা

এ দিন সকালে ঘটনাটি ঘটেছে সালানপুরের দেন্দুয়াতে৷ নিহত যুবকের নাম পরিচয় পরিচয় এখনও জানা যায়নি। স্থানীয় সূত্রে খবর, সকালে বনজেমারির খিলান ধাওড়ায় ঘোরাঘুরি করছিলেন বছর তিরিশের ওই যুবক ৷ অস্বাভাবিক আচরণ দেখে সন্দেহ হওয়ায় তাঁকে আটকে রাখে স্থানীয়রা ৷ ছেলেধরা সন্দেহে ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে শুরু হয় মারধর ৷ ওই যুবক সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়লেও রেহাই মেলেনি। সেই অবস্থাতেই রাস্তায় ফেলে ফের তাঁকে মারধর শুরু হয়। 

খবর পেয়ে সালানপুর থানার পুলিশ  ঘটনাস্থলে এসে  যুবককে উদ্ধার করে গাড়িতে তোলে। কিন্তু ফের পুলিশের গাড়ি থেকে যুবককে নামিয়ে মারধর শুরু করে উন্মত্ত জনতা। কোনওরকমে তাঁকে উদ্ধার করে আসানসোল জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন৷  

আসানসোলে এর আগেও ছেলেধরা সন্দেহে একাধিকবার গণপিটুনির ঘটনা ঘটেছে । গুজব রুখতে পুলিশ-প্রশানের তরফে প্রচার চালানো হচ্ছে ৷ কিন্তু বিধানসভায় বিল পাশ, পুলিশের সচেতনতামূলক প্রচার, কোনও কিছুতেই কাজের কাজ হচ্ছে না। এ দিনও গণপিটুনির ঘটনায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।