ভিনরাজ্যে কাজ করতে গিয়ে বাঙালি যুবকের রহস্যমৃত্যু। চেন্নাইয়ে উদ্ধার পুরুলিয়ার যুবকের রক্তাক্ত দেহ।  প্রশাসনের কাছে ঘটনার তদন্ত ও মৃতদেহ ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করার আর্জি জানিয়েছে মৃতের পরিবারে।

মৃত যুবকের বিটটু বাউরি। বছর চব্বিশের ওই যুবকের বাড়ি পুরুলিয়া মফঃস্বল থানার রাঘবপুর গ্রামে। অভাবের সংসারে স্বচ্ছলতা আনতে চেন্নাইয়ে  কাজ করতে গিয়েছিলেন তিনি।  পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, শুক্রবার বন্ধুদের সঙ্গে কাজে যোগ দিতে চেন্নাই রওনা হন বিটটু। সোমবার তাঁর মৃত্যুসংবাদ আসে। জানা গিয়েছে যে সংস্থার হয়ে চেন্নাইয়ে কাজ করতে গিয়েছিলেন ওই যুবক, সেই সংস্থার আধিকারিকরা তাঁর মৃত্যুসংবাদ বাড়ির লোককে জানান।

আরও পড়ুন: ট্রাক থেকে তোলাবাজির অভিযোগ, বহরমপুরে গ্রেফতার যুব তৃণমূল নেতা

কিন্তু চেন্নাই যাওয়ার তিনদিনের মাথায় কীভাবে মারা গেলেন বিটটু? তা এখনও স্পষ্ট নয়। মৃতের পরিবারের দাবি, ঠিকাদার সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, চেন্নাইয়ে যে বাড়িতে থাকতেন ওই যুবক, সেই বাড়ির একটি ঘরেই রক্তাক্ত মৃতদেহ পাওয়া গিয়েছে।  বেশি রোজগারের আশায় এ রাজ্য থেকে ভিনরাজ্য়ে, এমনকী, বিদেশেও কাজ করতে যান অনেকেই। কয়েক দিন আগেই কাশ্মীরে কাজ করতে গিয়ে জঙ্গি হামলার প্রাণ হারান মুর্শিদাবাদের পাঁচ শ্রমিক। কুলগ্রামে আস্তানা থেকে জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে তাঁদের গুলি করে খুন করে জঙ্গিরা। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের ভিনরাজ্যে কাজ করতে গিয়ে প্রাণ গেল এক বাঙালি যুবকের।