দু বছরে চার জন প্রশাসক বদল হাওড়া পুর নিগমে।  নবান্ন থেকে জারি হওয়া নির্দেশিকা অনুযায়ী হাওড়া পুরনিগমে নতুন প্রশাসকের পদে আনা হল আইএএস অফিসার অভিষেক কুমার তিওয়ারিকে। গত দুই বছরে চারবার প্রশাসক বদল করা হল হাওড়া পুরনিগমে।

আরও পড়ুন, ডেরেকের ফোনে আন্দোলনরত কৃষকদের সঙ্গে কথা মুখ্যমন্ত্রীর, কেন্দ্রকে হুঁশিয়ারি মমতার

বর্ধিত কাজের চাপের জন্য সমস্যা

 নবনিযুক্ত প্রশাসক এর আগে উচ্চ শিক্ষা দফতরের যুগ্ম সচিবের দায়িত্ব পালন করছিলেন। তাঁকে সেই দফতর থেকে বদল করে পুরসভার প্রশাসক হিসাবে নিয়ে আসা হল। এর আগে হাওড়া জেলার শাসক মুক্তা আর্য জেলা শাসকের সঙ্গে হাওড়া পুরনিগমের প্রশাসকের অতিরিক্ত দায়িত্ব সামলাচ্ছিলেন। কিন্তু জেলা শাসকের কাজের দায়িত্ব ও পুরনিগম পরিচালনার বর্ধিত কাজের চাপের জন্য সমস্যা তৈরি হচ্ছিল বলেই প্রশাসন সূত্রের খবর। তাই জেলা শাসকের উপর থেকে বর্ধিত কাজের চাপ কমানোর জন্য পুরনিগমের কাজে দ্রুততা আনার উদ্দেশ্যেই প্রশাসকের পদে নতুন কাউকে প্রয়োজন ছিল বলেই নবান্ন সূত্রের খবর। শুক্রবার থেকে নব নিযুক্ত প্রশাসক অভিষেক কুমার তিওয়ারি তার দায়িত্ব নেবেন। এতে বোর্ডহীন পুরসভার কাজে গতি আসবে বলেই মনে করছেন পুরনিগমের কর্মীরা।

আরও পড়ুন, মন টানছে মাইথনে, আজই বেরিয়ে পড়ুন, রইল কলকাতার কাছেই ঘুরতে যাওয়ার নতুন ৫ ঠিকানা

 দু বছরে ৪ জন প্রশাসক বদল

প্রসঙ্গত ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে হাওড়া পুরনিগমের নির্বাচিত বোর্ডের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়। এরপরে পুরনিগম পরিচালনার দায়িত্ব পরে তৎকালীন পুর কমিশনার বিজিন কৃষ্ণার উপরে। পরবর্তীকালে পুরনিগমের কাজে গতি আনতে তৈরি করা হয় বোর্ড অফ এডমিনিস্ট্রেটর। যার সভাপতি করা হয় পুর কমিশনার বিজিন কৃষ্ণা কে কিন্তু হাওড়া জেলায় মুখ্যমন্ত্রী র প্রশাসনিক বৈঠকের পর সেই বোর্ড অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর সরিয়ে দিয়ে শুধুমাত্র পুরসভার কমিশনার কে দিয়েই পুর নিগমের কাজ পরিচালনা করা হয়। আর এই বছরে করোনা আবহের মধ্যেই বিজিন কৃষ্ণা কে অন্য দফতরে বদলি করা হয়। তার জায়গাতে আসেন সহকারী জেলা শাসক ধবল জৈন। তিনি কিছু মাস পুরনিগমের দায়িত্ব পালন করেন। সম্প্রতি তাকেও অন্যত্র বদলি করে পুরনিগম পরিচালনার অতিরিক্ত দায়িত্ব নেন হাওড়ার জেলা শাসক মুক্তা আর্য। বৃহস্পতিবার নবান্ন থেকে জারি করা নির্দেশিকা অনুযায়ী হাওড়া পুরনিগম পেতে চলেছে নতুন পুর কমিশনার আইএএস অভিষেক কুমার তিওয়ারিকে।