সকাল থেকে ফুঁসছে সমুদ্র, একে এক ঢেউ আছড়ে পড়ছে উপকূলে। সুপার সাইক্লোন আমফানের তাণ্ডবে সৈকতশহর দিঘা লণ্ডভণ্ড হয়ে যাবে না তো? আশঙ্কা তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রশাসনের তৎপরতা তুঙ্গে। দিঘায় পৌঁছে গিয়েছে বিপর্যয় মোকাবিলা দল। উপকূলকর্তী এলাকার বাসিন্দাদের সরকারি আশ্রয়স্থলে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। চলছে মাইকিং-ও।

আরও পড়ুন: সুপার সাইক্লোনে পরিণত হল আমফান, ঝোড়ো হাওয়ার গতিবেগ ২০০ কিমি ছাড়িয়ে গেল

এখন স্রেফ ঘুর্ণিঝড় নয়, সুপার সাইক্লোনে পরিণত হয়েছে আমফান। ভরকেন্দ্রে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ২৭৫ কিলোমিটারে পৌঁছে গিয়েছে! আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস, আমফানের এই সুপার সাইক্লোন অবস্থা অবশ্য বেশিক্ষণ স্থায়ী হবে না। বরং মঙ্গলবার দুপুরের পর থেকে একটু একটু শক্তি কমতে শুরু করবে। তখন সুপার সাইক্লোন থেকে শক্তিশালী ঘুর্ণিঝড়ে পরিণত হবে আমফান।  ভরকেন্দ্রে গতিবেগও নেমে আসতে পারে ২৬০ কিমি। কিন্তু তাতেও কি আর বিপদ কমবে! আবহাওয়া দপ্তর  জানিয়েছে, বুধবার বিকেলে ২০০ কিমি বেগে দীঘার উপকূলে আছড়ে পড়বে ঘুর্ণিঝড় আমফান।

আরও পড়ুন: নবান্নকে না জানিয়েই আমফান নিয়ে মোদীর বৈঠক, ক্ষুব্ধ মমতাকে ফোন করে পাশে থাকার আশ্বাস শাহের

মঙ্গলবার ভোর থেকে ফুঁসছে দিঘার সমুদ্র। তীব্র জলোচ্ছ্বাসে প্রমাদ গুনছেন জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দলের সদস্যরা।  খবর পেয়ে তৎপরতা আরও বেড়েছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রশাসনের। সমুদ্র লাগোয়া গ্রামগুলি বার্তা পৌঁছে গিয়েছে, জিনিসপত্র গুছিয়ে নিয়ে ঘরবাড়ি ছেড়ে সরকারি আশ্রয় কেন্দ্রে চলে যেতে হবে সকলেই।  লকডাউনে বাজারে এখন পর্যটকদের ভিড় নেই। মঙ্গলবার সকালে সমুদ্র সৈকতে বেশ কয়েকটি দোকান খুলেছিল। সেই দোকানগুলিতে বন্ধ করে দেওয়া হয় প্রশাসনের তরফে। উপকূল লাগোয়া এলাকায় মাইকিং করছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দল।