ভোট যতই এগিয়ে আসছে ততই, আক্রমণাত্মক হয়ে উঠছেন রাজনৈতিক নেতারা। জনসভায় দাঁড়িয়ে যখন মমতা ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়কে তীব্র হুঁশিয়ারি দিচ্ছে বিজেপি শিবির। দিলীপ ঘোষ থেকে শুরু করে শুভেন্দু অধিকারী। তখন প্রধান বিরোধী দল বিজেপির বিরুদ্ধেও দিনে দিনে সুর চড়া করছেন তৃণমূল নেতারা। তৃণমূলের জনসভা থেকে গেরুয়া শিবিরকে তীব্র হুঁশিয়ারি দিলেন অভিষেক। ভোটের আগে ফিরে এল সেই চেনা হিংসাত্মক স্লোগান।

আরও পড়ুন-'এই প্রজাতন্ত্র দিবসে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হই, আগামী নির্বাচন হবে হিংসামুক্ত', রাজ্যকে ফের খোঁচা রাজ্যপাল

রবিবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলতলিতে সভা করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়। আর সেখান থেকেই বিজেপি তীব্র হুঁশিয়ারি দিলেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ। হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন,'' দিলীপ ঘোষরা বলছেন স্বাস্থ্যসাথী আসলে ভাঁওতা। আবার ওনার পরিবারের লোকেরা গিয়েই কার্ড নিচ্ছে। উন্নয়ন ও পরিসংখ্যানের নিরিখে লড়াই হোক। ১০-০ গোলে হারাতে না পারলে রাজনীতিতে পা রাখব না। এরা উন্নয়ন নিয়ে কথা বলতে পারে না। ভাইপো না বলে আমার নাম উচ্চারন করে দেখান। কড়ায় গন্ডায় সব বুঝিয়ে দেব। ইঞ্চিতে ইঞ্চিচে বদলা নেব, তৈরি থেকো''।

আরও পড়ুন-'নেতাজীকে নিয়ে একশবার রাজনীতি করব, হিম্মত থাকলে আটকে দিক', ফের বিস্ফোরক দিলীপ ঘোষ

এদিন কুলতিল সভায় দিন যতই গড়িয়েছে, ততই আক্রমণাত্মক হয়েছেন অভিষেক। কেন্দ্রীয় নীতির বিরোধিতা করে ভাতে মারতে চাইছে কেন্দ্র। পাশাপাশি, ''দলত্যাগী বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর তোলাবাজ ভাইপো মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করেন তিনি। বলেন, তোমাকে টিভিতে টাকা নিতে দেখা গিয়েছে, আর তুমি আমাকে তোলাবাজ বলছ। সুদীপ্ত সেন বলেছিলেন, তিনি শুভেন্দুকে টাকা দিয়েছেন। দশ বছর খেয়ে মধু মিরজাফর এখন সাধু সাজছে। তুমি টাকা নিয়েছো প্রমাণ দিয়েছি, আমার বিরুদ্ধে প্রমাণ দিতে পারলে ফাঁসির মঞ্চে মৃত্যুবরণ করব''।