'বিজেপি ক্ষমতায় এলে প্রত্যন্ত এলাকায় বদলি করে দেওয়া হবে।' শিলিগুড়িতে মিছিল করতে গিয়ে ফের পুলিশ বাধার মুখে পড়লেন মহিলা মোর্চার সভানেত্রী অগ্নিমিত্র পাল। এরপর বাংলার পুলিশকর্মীদের পাল্টা বদলি করে দেওয়ার হুমকি দিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: বর্তমান পরিস্থিতিকে অন্ধকূপের সঙ্গে তুলনা, নির্মলার কাছে পরিত্রাণের পথ দেখানোর আর্জি সৌগত রায়ের

ফ্যাশন দুনিয়া থেকে এসেছেন রাজনীতির জগতে। রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ইস্যুতে নিয়মিত পথে নামছেন বিজেপি মহিলার মোর্চার সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল। শুক্রবার তাঁর কর্মসূচি ছিল শিলিগুড়িতে। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার অবনতি অভিযোগে কাঞ্জনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে রাজ্য বিজেপি-এর এক মিছিল অংশ নেন অগ্নিমিত্রা। মিছিলে হাঁটছিলেন সাংসদ সৌমিত্র খাঁ, সায়ন্তন বসু-সহ গেরুয়াশিবিরের অন্যন্য নেতা-নেত্রীরাও। 

আরও পড়ুন: 'পরিযায়ী শ্রমিকদের তথ্য কেন্দ্রের কাছে নেই', লকডাউনে কর্মসংস্থান নিয়ে কেন্দ্রকে তোপ অধীরের

মিছিল যখন শিলিগুড়ি শহরের হাসপাতাল মোড়ে কাছে পৌঁছয়, তখন বিজেপি নেতানেত্রীরা দেখেন, গোটা রাস্তা ব্যারিকেড করে দিয়েছে পুলিশ। তবে ব্যারিকেড সরিয়ে এগিয়ে যান মিছিলকারীরা। এরপর হাসমিচক এলাকার কাছে ফের বাধা মুখে পড়েন তাঁরা। এবার ব্য়ারিকেড সরালে গেলে পুলিশের সঙ্গে মিছিলকারীদের রীতিমতো খণ্ডযুদ্ধ বেধে যায়। বিজেপির অভিযোগ, পুলিশ হামলায় দলের বেশ কয়েকজন কর্মী জখমও হয়েছেন। প্রতিবাদে হাসমিচক এলাকায় শুরু হয় অবস্থা বিক্ষোভ। পুলিশের ভূমিকায় মেজাজ হারান মহিলার মোর্চার সভানেত্রী অগ্নিমিত্র পাল। বলেন, 'যে সমস্ত পুলিশ অতিসক্রিয় হয়ে বাধা দিচ্ছে। ৬ মাস পর আমাদের সঙ্গে কাজ করতে হবে তাঁদের। প্রত্যন্ত এলাকায় বদলি করে দেওয়া হবে।'

 

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগে করোনা সতর্কতায় বাজার সরানো প্রতিবাদে হুগলির শেওড়াফুলিতে মিছিল অংশ নিয়েছিলেন অগ্নিমিত্রা পাল। সেবারও পুলিশি বাধার মুখে পড়েন বিজেপি-এর মহিলা মোর্চার সভানেত্রী। এবার একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটল শিলিগুড়িতে।