নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বিক্ষোভের আঁচ এবার বিশ্বভারতীতেও।  পড়ুয়াদের বিক্ষোভের মুখে পড়লেন বিজেপি-এর রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত। ক্যাম্পাসে সাংসদকে কালো পতাকা দেখানো হল, 'উঠল গো ব্যাক' স্লোগানও।

স্রেফ বিজেপি রাজ্য সাংসদই নন, স্বপন দাশগুপ্ত বিশ্বভারতী কোর্ট সদস্যও বটে। কিন্তু পড়ুয়াদের আপত্তি আগ্রহ্য করে বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে বিক্ষোভের মুখ পড়লেন তিনি। কয়েক দিন আগে বিশ্বভারতীর ওয়েবসাইটে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়,বিশ্ববিদ্যালয়ের লিপিকা প্রেক্ষাগৃহে ‘The CAA-2019: Understanding and Interpretation’ শীর্ষক একটি সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে।  সেমিনারে যোগ দেবেন বিজেপি-এর রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত।  কিন্তু বিশ্বভারতীতে এই ধরণের সেমিনারের প্রয়োজনীয়তা কী? প্রশ্ন তোলেন পড়ুয়া ও অধ্যাপকদের একাংশ। শুধু তাই নয়,সেমিনার বয়কটেরও সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। বিক্ষুদ্ধ পড়ুয়া ও অধ্যাপকদের পাশে দাঁড়ায় ছাত্র ও অধ্যাপকদের একাধিক সংগঠন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত কয়েক দিন ধরেই উত্তপ্ত বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়।  বুধবার সকালে যখন ক্যাম্পাসে পৌঁছন বিজেপি সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত, তখন তাঁর গাড়ি আটকে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন পড়ুয়ারা। কালো পতাকা দেখানো হয়, ওঠে 'গো-ব্যাক' স্লোগান।  বিক্ষোভের জেরে দীর্ঘক্ষণ আটকে থাকতে হয় সাংসদকেও। ফের নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে ক্যাম্পাসে। শেষপর্যন্ত অবশ্য নাগরিকত্ব আইন সংক্রান্ত সেমিনারে যোগ দেন স্বপন দাশগুপ্ত।

আরও পড়ুন: বনধের দিনেই নাগরিকত্ব আইনের প্রচার, পথে নেমে সই সংগ্রহ বাঁকুড়ার সাংসদের

আরও পড়ুন: গাড়ি ভাঙছে পুলিশ, ভাইরাল ফুটেজ ঘিরে তোলপাড় বাংলা, দেখুন ভিডিও

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগে সিএএ ইস্যুতে উত্তাল হয়েছিল গোটা দেশ। আন্দোলন ঝাঁজ এখনও কিছুটা কমেছে ঠিকই। তবে সাধারণ মানুষের ক্ষোভ কিন্তু কমেনি। বস্তুত, সিএএ ইস্যুতেই যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে দু'দফায় বিক্ষোভের মুখে পড়েন খোদ রাজ্যপাল তথা আচার্য জগদীপ ধনখড়। বিক্ষোভের কারণে সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারেননি lতিনি।