আশিষ মণ্ডল, বীরভূম: তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জের? প্রবল বিস্ফোরণে উড়ে গেল সাবমার্সিবল পাম্পের ঘরের ছাদ। ঘটনায় আতঙ্ক ছড়াল বীরভূমের ইলামবাজারের ধরমপুর গ্রামে। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: মদ্যপান করা নিয়ে বিবাদের জের, পুরুলিয়ায় ভাইকে 'খুন' করে 'আত্মঘাতী' দাদা

জানা গিয়েছে, ধরমপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একেবারেই লাগোয়া চাষের জমি। সেই জমিতে সেচের কাজের জন্য ঘরে ছাউনির পাকা ঘরে বসানো হয়েছিল একটি সাবমার্সিবল পাম্প। পাম্প ঘরের মালিক শেখ জালালউদ্দিন নাম এক ব্যক্তি। তিনি আবার স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্যা রকেয়া বিবির স্বামী। স্থানীয় বাসিন্দা জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরে সাবমার্সিবল পাম্পটি বন্ধ ছিল। শুক্রবার ভোরে আচমকাই বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে, পাম্প ঘরের খড়ের ছাউনিটি উড়ে যায়। এরপরই দাউ দাউ করে আগুন জ্বলতে শুরু করে। ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। ঘটনাস্থলে গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করেছে পুলিশ। 

আরও পড়ুন: স্বামী-সন্তান উধাও, নবদ্বীপে ভাড়াবাড়িতে গৃহবধূর মৃত্যুতে ঘনাচ্ছে রহস্য

বিস্ফোরণ ঘটল কী করে? তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে মাঝে মধ্যে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে ইলামবাজারের ধরমপুর গ্রাম। সম্প্রতি গোষ্ঠী সংঘর্ষে শাসকদলের দু'জন নেতা মারাও গিয়েছেন। বিজেপির ব্লক সভাপতি চিত্তরঞ্জন সিংহের অভিযোগ, এলাকায় সন্ত্রাস ছড়াতে সাবমার্সিবল পাম্পের ঘরে বোমা মজুত করে রেখেছিল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্ত দাবি করেছেন তিনি। আর তৃণমূলের ব্লক সভাপতি ফজলুল হকের জানিয়েছেন, 'দল বিরোধী কাজের জন্য ধরমপুর গ্রামে পঞ্চায়েত সদস্যকে বহিষ্কার করা হয়েছে। কীভাবে বিস্ফোরণ ঘটল, বলতে পারব না।'