আশিস মণ্ডল, বীরভূম:  মাটির নিচ লুকানো ছিল বোমা! বিস্ফোরণে গুরুতর জখম হলেন বাবা ও ছেলে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় দু'জনেই ভর্তি বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। ঘটনাস্থল, সেই বীরভূম।

আরও পড়ুন: 'ভুল মূর্তি'তে মাল্যদান অমিত শাহের, বিরসা মুন্ডাকে অপমানের অভিযোগে বিক্ষোভ বাঁকুড়ায়

জানা গিয়েছে, আহতেরা হলেন পটল শেখ ও তাঁর ছেলে ইসলাইল। বাড়ি, রামপুরহাট থানার বগটুই গ্রামের পূর্ব পাড়ায়। বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ি চারপাশে বেড়া দিচ্ছিলেন বাবা ও ছেলে। বাঁশের পোঁতার জন্য মাটি খুঁড়ে গর্ত করছিলেন তাঁরা, তখন আচমকাই প্রবল বিস্ফোরণ ঘটে। পটলের মুখ ঝলসে যায়, গুরুতর জখম হন ইসমাইলও। তাঁদের উদ্ধার করে প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয় রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ার দু'জনকেই পরে স্থানান্তরিত করা হয় বর্ধমান মেডিক্য়াল কলেজ হাসপাতালে।

আরও পড়ুন: রাজ্যে ৪৫ শতাংশ লোকাল ট্রেন চালানোর প্রস্তাবে সম্মতি, স্বরাষ্ট্রসচিবকে চিঠি রেলের

কী বিস্ফোরণ ঘটল? স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, পটল শেখ পেশা বাস চালক, আর ইসমাইল তেমন কোনও কাজ করতেন না। তাঁদের  বাড়ির কাছে মাটির নিচে বোমা লুকিয়ে রাখা হয়েছিল। মাটির খোঁড়ার সময়ে শাবলের আঘাতে সেই বোমা ফেটে যায়। এর আগে ২০১২ সালে বগটুই গ্রামে বোমা বাঁধতে গিয়ে বিস্ফোরণে প্রাণ হারান সাতজন যুবক। পরবর্তীকালে রাজনৈতিক বিবাদে বোমা-গুলির লড়াই-এর বারবার উত্তেজনা ছড়িয়েছে গ্রামে।