মুখ্যমন্ত্রী আসার ২৪ ঘন্টা আগে  এক অজ্ঞাত পরিচয় মহিলার অর্ধদগ্ধ মৃতদেহ উদ্বারকে ঘিরে চঞ্চল্য দক্ষিনদিনাজপুর জেলার বংশীহারি এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে জেলার বংশীহারি থানার মহাবারি গ্রামপঞ্চায়েতের ঠাকুরপীর গ্রামে।

আরও পড়ুন, প্রশাসনিক বৈঠকে ক্ষোভ প্রকাশ মুখ্যমন্ত্রীর, হাসপাতাল থেকে সরছে পুলিশ ক্যাম্প

জানা গিয়েছে, বুধবার সকাল বেলায় এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা জমিতে কাজ করতে যাওয়ার সময় ওই  অজ্ঞাত পরিচয় তরুনীর অর্ধদগ্ধ মৃতদেহ পরে থাকতে দেখেন। তরুনীর গায়ে কোন কাপড় ছিলনা।  মৃতদেহর পাশেই পড়েছিল একটি খালি কেরসিনের কন্টেনার ও দেশালাইয়ের বাক্স।এরপরেই স্থানিওরা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ গিয়ে মৃতদেহটি আটক করে থানায় নিয়ে যায়। যদিও এবিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার দেবর্ষি দত্ত জানান, তদন্ত চলছে। এই মুহুর্তে এর বেশি কিছু বলা সম্ভব নয়। 

আরও পড়ুন, আম্রমুকুল আর পলাশ জানান দিচ্ছে বসন্তের, দোল উৎসবে মাতবে এবার শহর ও শান্তিনিকেতন


প্রসঙ্গত উল্লেখ্য়,  ২০১৮ সালেও মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফরের আগে কুশুমন্ডিতে  এক  আদিবাসি মহিলাকেও ধর্ষন করে একটি ডোবার ধারে ফেলে রেখে গেছিল দুষ্কৃতিরা। সেটা নিয়ে ও সেসময় বিরোধীরা হৈচৈ জুড়ে দিয়েছিল রাজ্যে মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে। পরে মুখ্যমন্ত্রী জেলায় সভা করতে এসে তাকে আর্থিক ক্ষতিপুরন হিসেবে কয়েক লক্ষ টাকার চেক তুলে দিয়েছিলেন।পাশাপাশি তার পরিবারের ভরন পোষনের দায় ভার রাজ্য সরকার নেবে বলে জানিয়ে বিরোধীদের পালের হাওয়া কেড়ে নিয়ে ছিলে। এবার কি হয় সেদিকে তাকিয়ে জেলার রাজনৈতিক মহল।

 

আরও পড়ুন, পুলওয়ামার শহিদের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য রাজ্যপালের, সস্ত্রীক গেলেন বাড়িতে