বাম আমলে 'খুন' হয়েছিলেন বাবা-মা। আর ছেলের ঝুলন্ত দেহ মিলল তৃণমূল বিধায়কের বাড়িতে! ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার গোসাবায়। মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে ওই যুবক আত্মহত্যা করেছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: রাতের অন্ধকারে স্বামীকে 'খুন', চুল কেটে মহিলাকে মন্দিরে আটকে রাখলেন প্রতিবেশীরা

জানা গিয়েছে, মৃত যুবক লাবন্য নামেই পরিচিত ছিলেন। বাড়ি, গোসাবারই পাঠানখালী এলাকায়। তখন লাবণ্যের বয়স মাত্র ১৫ বছর। বাম আমলে স্থানীয় সিপিএম নেতার তাঁর বাবা-মাকে খুনের অভিযোগ ওঠে। সেই থেকে গোসাবার তৃণমূল বিধায়ক জয়ন্ত নস্করের বাড়িতে থাকতেন ওই যুবক। পরে পড়াশোনার জন্য তাঁকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় সোনারপুরে। লকডাউন জারি হওয়ার পর লাবণ্য ফিরে আসেন বিধায়কের বাড়িতে।  বুধবার রাতে পরিচারিকা যখন ঘরে খাবার দিতে যান, তখন দেখেন লাবণ্য় গলায় ফাঁস গিয়ে ঝুলছেন। বিধায়কের নিরাপত্তারক্ষীরা তাঁকে নামিয়ে নিয়ে যান হাসপাতালে। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে দিয়েছে। হাসপাতালে লাবণ্যকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

আরও পড়ুন: দলে বড়সড় রদবদল, তৃণমূলের রাজ্য কমিটিতে আনা হল ছত্রধর মাহাতোকে

পুলিশ সূত্রে খবর, নিহতের ঘর থেকে তিনটি সুইসাইড নোট পাওয়া গিয়েছে। ওই যুবকের হাতের লেখা সঙ্গে সুইসাইড নোটের লেখা মিলিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। বোনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা গিয়েছে, একটি মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল লাবণ্যের। সেই সম্পর্কে টানাপোড়েনের কারণেই চরম সিদ্ধান্ত নিলেন? খতিয়ে দেখছে পুলিশ।