বল ভেবে জিলেটিক স্টিক নিয়ে খেলছিল সে। ফলে যা হওয়ার, তাই হল।  প্রবল বিস্ফোরণে হাতের দুটি আঙুল উড়ে দিয়েছে ওই বালকের। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বীরভূমের রামপুরহাটে। 

রামপুরহাটের ছোড়া গ্রামে বাড়ি অভিজিৎ মেহনার। স্থানীয় একটি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে সে। বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির সামনেই বন্ধুদের সঙ্গে খেলা করছিল অভিজিৎ।  স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, খেলার সময়ে আর্বজনা স্তুপ থেকে একটি প্যাকেজ খুঁজে পায় ওই বালক। সেই প্যাকেটেই ছিল জিলেটিন স্টিক। জানা গিয়েছে, ইঁট দিয়ে যখন স্টিকগুলি ভাঙতে যায় অভিজিৎ, তখন প্রবল বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের গুরুতর জখম চতুর্থ শ্রেণির ওই পড়ুয়া। তাকে রামপুরহাট মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করেছেন গ্রামবাসীরা। শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে।

কিন্তু বাড়িতে জিলেটিন স্টিক এল কোথা থেকে? জানা গিয়েছে, অভিজিতের বাবা খাদানকর্মী। কাজের সুবাদে বাড়িতে কয়েকটি জিলেটিন স্টিক এনেছিলেন তিনি। বিস্ফোরকগুলি লুকিয়ে রেখেছিলেন বাড়ি বাইরে আর্বজনার স্তুপে। কিন্তু খেলতে গিয়ে বিস্ফোরকের সন্ধান পেয়ে যায় ছেলে। তারজেরে ঘটল বিপত্তি।

আরও পড়ুন: মালদহে বিপুল পরিমানে মাদক উদ্ধার, গ্রেফতার ১

আরও পড়ুন: ট্রেনে মহিলা যাত্রীর রহস্যমৃত্যু,সংরক্ষিত কামরায় মিলল দেহ

দিন কয়েক আগে একই ঘটনা ঘটেছিল দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাটে। সেবার খেলার মাঠে বোমা বিস্ফোরণের গুরুতর জখম হয় দুই বালক। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, গ্রামের মাঠে খেলার করছিল কয়েকজন ছেলে। মাঠে গোলাকার একটি বস্তু দেখে লাথি মারতে যায় একজন। এরপরই প্রবল বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে এলাকা। গুরুতর আহত অবস্থায় দু'জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।