বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখানের মাশুল, পড়শি যুবকের হাতে নৃশংসভাবে খুন হয়ে গেলেন এক কলেজ ছাত্রী। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মুর্শিদাবাদে দৌলতাবাদে।

আরও পড়ুন: ভয়াবহ বিস্ফোরণে ভেঙে পড়ল বাড়ি, এবার মুর্শিদাবাদে নাশকতার ছক

মৃতার নাম মুর্শিদা খাতুন ওরফে রোজা। বাড়ি, দৌলতাবাদের সালুয়া গ্রামে। বহরমপুর কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী ছিল সে। অল্প বয়েসে বিয়ে নয়, বরং পড়াশোনা করে মুর্শিদা জীবনে প্রতিষ্ঠিত হতে চেয়েছিলেন। স্বপ্ন ছিল শিক্ষিকা হওয়ায়। কিন্তু সেই স্বপ্ন অধরাই থেকে গেল। স্থানীয় সূত্রে খবর, গত কয়েক দিন ধরে মুর্শিদা পথেঘাটে নানাভাবে উত্যক্ত করত ওয়াসিম শেখ নামে এক যুবক। তার বাড়ি দৌলতাবাদের গুরুদাসপুর এলাকায়। কিন্তু ওয়াসিমকে পাত্তা দিতেন না মুর্শিদা। এরপর অভিযুক্ত যুবক যখন বিয়ের প্রস্তাব দেয়, তখন তা পত্রপাঠ খারিজ করে দেন কলেজ ছাত্রী। আর সেটাই কাল হল।

আরও পড়ুন: আক্রান্ত জেনেও মানেননি বিধিনিষেধ, হাওড়ায় নাপিত থেকে সংক্রমিত ২৯

অভিযোগ, রবিবার চুপিসারে বাড়িতে ঢুকে মুর্শিদাকে ধারালো অস্ত্র গিয়ে কোপাতে থাকে ওয়াসিম। চিৎকার শুনে বাড়ির লোকে ছুটে এলে জানলা দিয়ে পালিয়ে যায় সে। দৌলতাবাদ থানার পুলিশের তৎপরতায় শেষপর্যন্ত অবশ্য ধরা পড়ে যায় অভিযুক্ত। রক্তাক্ত অবস্থায় আক্রান্ত ছাত্রীটিকে নিয়ে যাওয়া হয় মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। চিকিৎসকরা মুর্শিদা খাতুনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এলাকায় শোকের ছায়া। দোষীর কড়া শাস্তির দাবি করেছেন সকলেই।