বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের অসুস্থ স্ত্রীকে দেখতে বুধবার হাসপাতালে গিয়েছিলেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় । কিছুক্ষণ কথা বলেন শুভ্রাশু রায়ের সঙ্গে । তারপরই শুরু হয় রাজনৈতিক জল্পনা । আর সেই জল্পনা শুরু হতেই তড়িঘড়ি হাসপাতালে যান বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ । শুভ্রাংশুর সঙ্গে কথা বলে কৃষ্ণাদেবীর শারীরিক অবস্থার খোঁজ নেন তিনি ।

আরও পড়ুন- মুকুল রায়ের স্ত্রীকে দেখতে হাসপাতালে অভিষেক, এবার কি তবে 'ঘর ওয়াপসি'

১০ মে করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর মুকুল রায়ের স্ত্রীকে অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল । করোনা মুক্তও হন তিনি। কিন্তু ফের অসুস্থ হয়ে পড়েন। বুধবার ঘূর্ণিঝড় যশ বিধ্বস্ত পাথরপ্রতিমা ঘুরে এসে তাঁকে দেখতে হাসপাতালে যান অভিষেক। তখন সেখানে মুকুল না থাকলেও কথা হয় শুভ্রাংশুর সঙ্গে । এরপরই তা  সৌজন্য সাক্ষাৎ কি না তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে । তাহলে কি এবার শুভ্রাংশু রায় তৃণমূলে ফিরতে চলেছেন ? সেই সম্ভাবনাও মাথাচাড়া দেয় । কারণ কয়েকদিন আগে সোশাল মিডিয়ায় তাঁর একটি পোস্ট ঘিরে জল্পনা ছড়িয়েছিল । সেখানে তিনি বিজেপি নেতাদের উদ্দেশ্য করে শুভ্রাংশু রায় লিখেছিলেন,  বিপুল ভোটে নির্বাচিত সরকারের সমালোচনা ছেড়ে আত্মসমালোচনা করা উচিত । 

এদিকে মুকুল রায়ের স্ত্রী এতদিন হাসপাতালে ভর্তি থাকলেও সেখানে কোনও বিজেপি নেতাকেই দেখা যায়নি । কিন্তু বুধবার সেখানে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় যাওয়ার পরই যেন টনক নড়ে বিজেপির । রাতেই হাসপাতালে যান দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ । 

তড়িঘড়ি দিলীপের এই হাসপাতালে যাওয়াকে ড্যামেজ কন্ট্রোলের চেষ্টা হিসেবেই দেখছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ । কারণ যেভাবে কয়েকজন 'নব্য' বিজেপি নেতা তৃণমূলে ফেরার আগ্রহ দেখিয়েছেন তাতে শুভ্রাংশুর সঙ্গে অভিষেকের সাক্ষাৎ শীর্ষ নেতৃত্বের চিন্তা বাড়িয়েছে বলেই তাঁদের মত ।