কুড়ি বছর ধরে যে বাড়িতে কাজ করতেন সেখানেই ধর্ষণের শিকার হতে হল এক পরিচারিকাকে। এই ঘটনায় ওই বাড়ির বাসিন্দা এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার নরেন্দ্রপুরে। 

নির্যাতিতা ওই মহিলার অভিযোগ, গত সোমবার ওই বাড়িতে কাজে গিয়েছিলেন তিনি। সেই সময় অভিযুক্ত সুব্রত কুইল্যা বাড়ির একতলার একটি ঘরে তাঁকে ধর্ষণ করে। নির্যাতিতার দাবি, সেই সময় বাড়ির উপরের তলায় অভিযুক্তের স্ত্রী এবং এক শ্যালিকা ছিলেন। যদিও তাঁরা বিষয়টি সম্পর্কে কিছু জানতে পারেননি। লজ্জায় তিনিও কাউকে কিছু বলেননি বলে জানিয়েছেন নির্যাতিতা। পরে ওই যুবকের মাকে তিনি গোটা ঘটনা খুলে বলেন। শুক্রবার পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন নির্যাতিতা। সেদিন রাতেই পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করে। সে একটি বেসরকারি মোবাইল সংস্থার কর্মী।

আরও পড়ুন- মুখ ফেরালেন বন্ধুরাও, হায়দরাবাদের নৃশংসতার প্রতিবাদে একাই পথে বহ্নিশিখা

আরও পড়ুন- বিপদে পড়লেই পুলিশকে বার্তা, মহিলাদের জন্য হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ খুলল থানা

নির্যাতিতা জানিয়েছেন, প্রায় কুড়ি বছর ধরে তিনি ওই বাড়িতে কাজ করছেন। অভিযুক্ত যুবক তাঁকে পিসি বলেও ডাকত। তার হাতেই নির্যাতিত হয়ে এখনও আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন নির্যাতিতা।। অভিযুক্ত যুবককে শনিবারই আদালতে পেশ করে পুলিশ। অভিযুক্তের পরিবারের তরফে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।