Asianet News BanglaAsianet News Bangla

মন্দির তৈরির সাধ অধরা, প্রতারকের খপ্পরে পড়ে লক্ষাধিক টাকা খোয়ালেন সন্ন্যাসী

  • রেহাই নেই বৃদ্ধ সন্ন্যাসীরও
  • প্রতারকের খপ্পরে পড়ে খোয়ালেন লক্ষাধিক টাকা
  • অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ
  • নদিয়ার নবদ্বীপের ঘটনা
     
Elderly monk loses money in a fraud case at Nadia BTG
Author
Kolkata, First Published Sep 25, 2020, 1:38 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

মৌলিককান্তি মণ্ডল, নদিয়া:  প্রতারকদের ফাঁদে এবার সন্ন্যাসীও! মন্দির তৈরির জন্য যে টাকা জমিয়েছিলেন, সবটাই খোয়া গিয়েছে। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার নবদ্বীপে।

আরও পড়ুন: 'টাকা দিলেই বাড়তি পেনশন', স্কুল পরিদর্শকের বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ মেদিনীপুরে

সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিলেন আগেই। কলেজের পাঠ শেষ করার পর সন্ন্যাস নেন শ্রীবাস দাস গোস্বামী। নবদ্বীপের স্বরূপগঞ্জ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় থাকেন তিনি। ইচ্ছা ছিল, গ্রামে একটি মন্দির তৈরি করবেন। কিন্তু টাকা জোগাড় হবে কী করে? অশতিপর ওই সন্ন্যাসীর দাবি, অসম ও নদিয়ার মহেশগঞ্জের পৈতৃক সম্পত্তি বিক্রি করে ৩৬ লক্ষ টাকা পেয়েছিলেন। কিন্তু সমবায় সমিতির নাম করে পুরো টাকাটাই সুব্রত মণ্ডল নামে এক ব্যক্তি হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন:টানা বৃষ্টির জের, ধ্বসে বন্ধ পাহাড়ের পথ, সংযোগহীন সিকিম-কালিম্পং

শ্রীবাস দাস গোস্বামীর দাবি,  পৈতৃক সম্পত্তি বিক্রি করে যে টাকা পেয়েছিলেন, সেই ৩৬ লক্ষ টাকা মাজদিয়া গ্রাম উন্নয়ন সমিতি নামে একটি সংস্থার জমা রেখেছিলেন তিনি। নিজেকে ওই সংস্থার কর্ণধার বলে পরিচয় দেয় অভিযুক্ত ব্যক্তি। এমনকী, মাসে মাসে সুদ বাবদ ৬১ হাজার টাকার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল সে। কিন্তু তিন বছর কেটে গেলেও, সুদের টাকা আর পাননি ওই সন্ন্যাসী। এরপরই প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করা হয় নবদ্বীপ থানায়। অভিযুক্ত সুব্রত মণ্ডলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাকে সাতদিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios