পেটের দায়ে প্রাণের ঝুঁকি নিতেও পিছুপা হচ্ছেন না মৎস্যজীবীরা। সুন্দরবনে মাছ ধরতে গিয়ে বাঘের হামলায় মৃত্যু ঘটছে বারবার। ২৪ ঘণ্টার এবার নিহতের পরিবারের হাতে আর্থিক সাহায্য তুলে দিল সরকার। যা আগে কখনও হয়নি।

আরও পড়ুন: ফের শিখরে বাংলা, এবার স্কচ অ্যাওয়ার্ড পেল রাজ্যের নারী ও শিশুকল্যাণ দপ্তর

ঘটনার সূত্রপাত শুক্রবার দুপুরে। স্থানীয় লাহিড়ীপুর এলাকার বাসিন্দা শশাঙ্ক মণ্ডল এক সঙ্গীকে সুন্দরবনের জঙ্গলে কাঁকড়া ধরতে যান, বিনা অনুমতিতে।  জঙ্গলের বাঘের আক্রমণের মুখে পড়েন এবং নিহত হন তিনি। খবর পৌঁছায় খোদ মুখ্যমন্ত্রীর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দপ্তরে। তারপর? নিহত মৎস্যজীবীর পরিবারকে আর্থিক সাহায্য দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। রাজ্যের তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর সূত্রে খবর, গোসাবার বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর শনিবার পরিবারের সদস্য়দের হাতে সরকারের তরফে দু'লক্ষ টাকা তুলে দিয়েছেন। দেওয়া হয়েছে জামা-কাপড় ও রেশনের সামগ্রীও।

আরও পড়ুন: স্পেশাল ট্রেনে উঠতে বাধা, সাধারণ যাত্রীদের সঙ্গে জিআরপি-র সংঘর্ষে রণক্ষেত্র হাওড়া স্টেশন

উল্লেখ্য, স্রেফ মৎস্যজীবীই নয়, সুন্দরবনে বাঘের হামলায় মধু সংগ্রহকারীর মৃত্যু হলেও পরিবারে পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করলেন তিনি। সেই কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে  তৃণমূলের দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার সভাপতি শুভাশিস চক্রবর্তী বলেন, 'তৃণমূল কংগ্রেসের সরকার প্রতিশ্রুতি রক্ষা করে। কোনও মানুষের ক্ষতি হোক এই সরকার চায় না।'