হলদিয়া পেট্রোকেমে ভয়াবহ দুর্ঘটনা। শুক্রবার সকালে ন্যাপথা ক্র্যাকার ইউনিটের কমপ্রেসর সেকশনে রক্ষণাবেক্ষণের কাজ চলাকালীন আচমকাই বিস্ফোরণ ঘটে আগুন লেগে যায়। ওই জায়গায় তখন ন্যাপথা বোঝাই থাকায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে ভয়াবহ আগুন ধরে যায়। যার ফলে তেরোজন শ্রমিক আগুনে ঝলসে যান। তাঁদের মধ্যে অন্তত পাঁচজনের অবস্থা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। 

আগুন এতটাই ভয়াবহ আকার ধারণ করে যে তা নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যর্থ হয় হলদিয়া পেট্রোকেমের নিজস্ব দমকল বাহিনী। খবর পেয়ে রাজ্য সরকারের দমকলের দশটি ইঞ্জিন এবং হলদিয়ায় অন্যান্য বেশ কয়েকটি কারখানার দমকল বাহিনী এসে আগুন নিয়ন্ত্রণের কাজ করে। শেষ পর্যন্ত এক ঘণ্টারও বেশি সময়ের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

আহত শ্রমিকদের হলদিয়াতেই প্রাথমিক চিকিৎসার পর গ্রিন করিডর করে কলকাতায় নিয়ে আসা হয় চিকিৎসার জন্য। মন্ত্রী জানিয়েছেন, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে দিল্লি থেকে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। হলদিয়া পেট্রোকেমের সঙ্গে কলকাতার বেশ কয়েকটি বেসরকারি নার্সিং  হোম এবং হাসপাতালের গাঁটছড়া রয়েছে। আহতদের চিকিৎসার জন্য সেখানেই নিয়ে আসা হচ্ছে বলে খবর। তবে রাজ্য সরকারের তরফে কলকাতার সরকারি হাসপাতালগুলিকেও তৈরি রাখা হচ্ছে। কীভাবে এতবড় দুর্ঘটনা ঘটল, তা খতিয়ে দেখতে উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত হবে বলে জানিয়েছেন শুভেন্দুবাবু। মন্ত্রী জানিয়েছেন সাম্প্রতিককালে হলদিয়া পেট্রোকেমে এত বড়ো দুর্ঘটনা ঘটেনি।