পেটের দায়ে জঙ্গলে কাঁকড়া ধরতে গেলে মৃত্যুই তবে ভবিতব্য! সুন্দরবনে ফের বাঘে তুলে নিয়ে গেল মৎস্যজীবীকে। তাঁর সন্ধানে তল্লাশি চালাচ্ছে বন দপ্তর। ঘটনাটি ঘটেছে পঞ্জমুখানির দুই নম্বর জঙ্গলে।

আরও পড়ুন: বীরভূমের ইলামবাজারে বিস্ফোরণ, উড়ে গেল ঘরের ছাউনি

মৃতের নাম যামিনী মিস্ত্র। বাড়ি, দক্ষিণ ২৪ পরগনার গোসাবার লাহিড়িপুর গ্রামে। দীর্ঘদিন ধরে সুন্দরবনের জঙ্গলে কাঁকড়া ধরতে যেতেন তিনি। পরিবারের লোকেরা জানিয়েছেন, শুক্রবার দুপুরে ছেলে-সহ দু'জনকে সঙ্গে নিয়ে জঙ্গলে যান যামিনী। কিন্তু আর বাড়ি ফেরা হল না। ছেলে মিলন মিস্ত্রি জানিয়েছেন, 'আমাদের মাছ ধরা প্রায় শেষ হয়ে গিয়েছিল। বাড়ি ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। আচমকাই জঙ্গল থেকে একটি বাঘ এসে বাবার উপর ঝাঁপিয়ে পড়ল। ঘাড়ে কামড় বসিয়ে জঙ্গলে নিয়ে চলে গেল। আমরা চেষ্টা করেও বাবা-কে উদ্ধার করতে পারিনি।'

আরও পড়ুন: এবার করোনায় আক্রান্ত লকেট চট্টোপাধ্যায়, কোথা থেকে সংক্রমণ

এদিকে এই ঘটনাটি জানজানি হতে শোকের ছায়া নামে এলাকায়। তবে ওই মৎস্যজীবীর এখনও পর্যন্ত কোনও খোঁজ মেলেনি। সুন্দরবনে তল্লাশি চালাচ্ছে বনদপ্তর। বনকর্মীদের দাবি, বিনা অনুমতিতেই গভীর জঙ্গলে  কাঁকড় ধরতে গিয়েছিলেন মৎস্যজীবীরা। আর তাতেই ঘটেছে বিপত্তি। কয়েক আগে প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে সুন্দরবনে মাছ ধরতে গিয়েছিলেন মানোয়ারা মণ্ডল নামে এক মৎস্যজীবী। তিনিও আর ফেরেননি। প্রাণ হারান বাঘের হামলায়। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের প্রাণ গেল আরও একজনের।