কোনও ভূতের গল্প নয়। কিন্তু বিষয়টা ভূতের গল্প বললেও ভুল হবে না। একটি বাড়ি থেকে কঙ্কাল উদ্ধার হওয়ার পর এখন  সেরকমই মনে করছেন সেখানকার বাসিন্দারা। বাড়িতে কেউ কোথাও নেই। চারিদিকে গা ছমছমে পরিবেশ। জঙ্গল, আগাছায় ভরে গিয়েছে ঘরের চারপাশ। আর সেখানেই হদিশ মিলল নরকঙ্কালের।

শোরগোল ছাড়াই খুঁটি পুজো হল পুরুলিয়া সরবড়ি সর্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটির

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে বারুইপুরের নর্থ কেবিন রোডে। জানাগেছে শুক্রবার বাচ্চাদের খেলার সময় বল ঢুকে যায় ওই এলাকার একটি বাড়িতে। বলের খোঁজ করতে বাড়িতে ঢুকতেই গা ছমছমে ভাব। ভয়ে ঘরের ভিতর ঢুকতে সাহস পায়নি বাচ্চারা।  স্থানীয় বাসিন্দাদের নিয়ে ঘরে ঢুকতেই অদ্ভুত সব জিনিসপত্র দেখতে পান তাঁরা। ঘরের মধ্য়ে পড়ে রয়েছে কঙ্কাল। এছাড়াও ঝাড়ফুঁক করার নানান সামগ্রী। এই অবাকজনক পরিস্থিতিতে পুলিশে খবর দেন স্থানীয় কাউন্সিলর তপন নস্কর।

আরও পড়ুন-বিশ্বকর্মা পুজোয় 'ফূর্তি', মদের টাকা না দেওয়ায় যুবককে 'বেধড়ক মার'

ঘটনাস্থলে বারুইপুর থানার পুলিশ পৌঁছে কঙ্কালগুলি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। জানাগেছে, বাড়িটি অনাঙ্গ মোহন মণ্ডল নামে এক ব্যক্তির। ওই বাড়িতে থাকতেন বাবা ও মেয়ে। লকডাউনের আগে থেকেই ওই বাড়িতে কাউকে দেখা যায়নি বলে জানান স্থানীয় বাসিন্দারা। বাড়িতে কেউ না থাকার কারনে চারপাশ জঙ্গল ও আগাছায় ভরে গিয়েছে। ঘরের ভিতরের সব জিনিসপত্র পড়ে রয়েছে আগাছোলা অবস্থায়। সিসিটিভি থাকলেও তা ভাঙা অবস্থায় পড়ে রয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বারুইপুর থানার পুলিশ।