শুভজিৎ পুততুণ্ড, বারাসত- বিশ্বকর্মা পুজোর রাতে চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটল বসিরহাটে। মদ খেয়ে আনন্দ-ফূর্তি করতে চেয়েছিলেন পুজো উদ্যোক্তারা। কিন্তু মদ কেনার জন্য টাকা না দেওয়ায়  পুজো উদ্যোক্তাদের হাতে বেধড়ক মার খেলেন ওই যুবক। গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি তিনি।

ছাত্র 'অপহরণে' ৭ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি, ছাত্রের দেহ উদ্ধারে ভাঙচুর-উত্তেজনা

আজব এই কাণ্ডটি ঘটেছে বসিরহাট মহকুমার হাসনাবাদ থানার ঘুনি গ্রামে। জানাগেছে, বৃহস্পতিবার বছর বিয়াল্লিশের দিব্যেন্দু করনের বাড়ির পাশের বিশ্বকর্মা পুজোর উদ্য়োগ নেওয়া হয়। দিনভর বিশ্বকর্মা পুজো সম্পন্ন হওয়ার পর রাতে আনন্দ ফূর্তি করতে পাশের বাড়ির বাসিন্দা দিব্যেন্দুর কাছে মদ খাওয়ার জন্য মোটা টাকা দাবি করে পুজো উদ্যোক্তারা। কিন্তু, দিব্যেন্দু বাবু দিতে না চাওয়ায় তাঁকে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। বাঁশ লোহার রড দিয়ে বেধড়ক পেটানো হয়। তার জেরে মাথা ফেটে যায় দিব্যেন্দু করনের।

আরও পড়ুন-রাজনৈতিক সংঘর্ষের বলি ছাত্র সহ ২ জন, সকাল থেকে থমথমে কেশপুর

আক্রান্ত দিব্যেন্দু করন বলেন, ''বেশ কয়েকদিন ধরেই পুজো উদ্যোক্তারা মদ খাওয়ার জন্য মোটা টাকা দাবি করছিল। কিন্তু আমি মদ খাওয়ার জন্য দিতে না চাওয়ায় চাপ দিচ্ছিল ওরা। তার প্রতিবাদ করায় আমাকে বেধড়ক মারধর করা হয়''। 

বাংলার বুকে শিল্পীর হাতে জীবন্ত সুশান্ত, আসানসোলে তৈরি সুশান্তের মোমের মূর্তি

পুজো উদ্য়োক্তাদের হাতে আক্রান্তকে গুরুতর জখম অবস্থায় টাঁকি গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার জেরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। হাসনানাবাদ থানায় পুজো উদ্যোক্তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়। হামলাকারীদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।