মিঠু সাহা, শিলিগুড়ি: স্রেফ শিলিগুড়ি বা সমতলেই নয়, করোনা সতর্কতায় এবার দার্জিলিং পাহাড়েও ফের লকডাউন জারি করল জিটিএ। পার্বত্য এলাকার চার মহকুমাতেই লকডাউন বহাল থাকবে সাতদিন।  লকডাউন ভেঙে যদি কেউ বাড়ির বাইরে বেরোন, সেক্ষেত্র আইন ভঙ্গকারীর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন জিটিএ চেয়ারম্যান অনিত থাপা।

আরও পড়ুন: মৃতের সঙ্গে হাসপাতালে রাতভর করোনা আক্রান্ত, খতিয়ে দেখার আশ্বাস জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিকের

আশঙ্কা ছিলই, আনলক পর্বে করোনা পরিস্থিতি আরও ঘোরালো হয়ে উঠেছে। আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে রাজ্যের সর্বত্রই। বহুক্ষেত্রে আবার আক্রান্তদের তেমন কোনও উপসর্গও দেখা যাচ্ছে না। ব্যতিক্রম নয় শিলিগুড়িও।  শহরে প্রথম লকডাউন জারি করা হয় ১৬ জুলাই। পরবর্তীতে লকডাউনের মেয়াদ বেড়েছে আরও সাতদিন।  আপাতত ২৯  জুলাই পর্যন্ত শিলিগুড়ি থাকবে পুরোদস্তুর লকডাউনের আওতায়। এবার সেই তালিকায় নাম উঠল দার্জিলিং পাহাড়েরও।

পাহাড়ে করোনা সংক্রমণ কীভাবে ঠেকানো যাবে? বৃহস্পতিবার দার্জিলিং-এ উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করেন জিটিএ আধিকারিকরা। সেই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, ২৬ জুলাই অর্থাৎ রবিবার থেকে টানা সাতদিন লকডাউন কার্যকর করা হবে দার্জিলিং, কার্শিয়াং, মিরিক ও কালিম্পং মহকুমায়। লকডাউন বহাল থাকবে শুকনা, সুখিয়াপোখরি, বিজনবাড়ি, তিনধারিয়া ও পোখরিবং বাজার এলাকায়।

আরও পড়ুন: লকডাউনের জেরে অঘোষিত বনধ, ঘরবন্দি হয়ে দিন কাটল আমজনতার

উল্লেখ্য, এর আগে যখন রাজ্য়ে লকডাউন চলছিল, তখন প্রায় তিনমাস পর্যটকশূন্য দার্জিলিং। পরিস্থিতির বদল ঘটে জুলাই মাসের গোড়ার দিকে। বেশ কয়েকটি ধাপে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও থার্মাল স্ক্রিনিং-এর পর পর্যটকদের শৈলশহরে ঢোকার অনুমতি দেয় জিটিএ।  দিন কয়েক আগে পর্যটকদের আনাগোনার ক্ষেত্রে ফের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। আর এবার শুরু হতে চলেছে লকডাউন।