Asianet News Bangla

করোনাভাইরাসের থাবা ব্লক অফিসে, পুরুলিয়ায় আক্রান্ত জয়েন্ট বিডিও

  • পুরুলিয়ায় করোনায় থাবা ব্লক অফিসে
  • আক্রান্ত হলেন জয়েন্ট বিডিও
  • সংক্রমণের আশঙ্কা বন্ধ পঞ্চায়েত অফিস
  • শিকেয় উঠেছ প্রশাসনিক কাজকর্ম
     
Joint BDO tested Corona positive in Purulia
Author
Kolkata, First Published Aug 7, 2020, 6:44 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

বুদ্ধদেব পাত্র, পুরুলিয়া:  করোনাভাইরাস এবার থাবা বসাল ব্লক অফিসে। সংক্রমিত হলেন খোদ জয়েন্ট বিডিও। পঞ্চায়েতে অফিসের ১০০ মিটারের মধ্যেও হদিশ মিলেছে আক্রান্তের। ব্লক অফিসই শুধু নয়, সংক্রমণের আশঙ্কায় বন্ধ পঞ্চায়েত অফিসও। প্রশাসনিক কাজকর্ম শিকেয় উঠেছে পুরুলিয়ায়। দুর্ভোগ বাড়ছে আমজনতার।

আরও পড়ুন: কন্টেনমেন্টন জোনের ব্যারিকেড 'খুললেন' বিদায়ী কাউন্সিলর, আতঙ্ক ছড়াল শহরে

পুরুলিয়া জেলার প্রত্যন্ত ব্লক বলরামপুর। করোনা আতঙ্কের মাঝেই স্বাভাবিক কাজকর্ম চলছিল ব্লক অফিসে। বিডিও ও জয়েন্ট বিডিও তো বটেই, নিয়মিত অফিসে আসছিলেন কর্মীরাও। তাল কাটল বৃহস্পতিবার। জানা গিয়েছে, সেদিন আচমকাই জ্বর আসে জয়েন্ট বিডিও-র। সঙ্গে মাথা যন্ত্রণা। ব্যস আর যায় কোথায়! ঘটনাটি জানাজানি হতেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে। বলরামপুরের জয়েন্ট বিডিও-কে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় বাঁশগড় হাসপাতালে। করোনা সন্দেহে ব়্যাপিড টেস্ট করা হয় তাঁর। পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসে।  এরপরই তড়িঘড়ি বন্ধ করে দেওয়া হয় বলরামপুর ব্লক অফিস। লালারস সংগ্রহ ব্লক কর্মীদের, রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত অফিসেই থাকতে হবে সকলকে।

আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কে শেষকৃত্যেও আপত্তি, বিক্ষোভে শামিল গ্রামবাসীরা

এদিকে আবার করোনা আতঙ্কে বন্ধ হয়ে গিয়েছে ঝালদা ১ নম্বর ব্লকের একটি পঞ্চায়েত অফিসও। পঞ্চায়েত অফিসের কোনও কর্মী কিন্তু আক্রান্ত হননি। জানা গিয়েছে, পঞ্চায়েত অফিস থেকে একশো মিটার এক ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। সংক্রমণ ঠেকাতে স্থানীয় বাসিন্দারাই  প্রধানকে পঞ্চায়েত অফিস বন্ধ রাখতে অনুরোধ করেন।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios