রাজ্যের নানা প্রান্ত থেকে এসেছে ওঁরা। কেউ এসেছে প্রতিষেধক নিতে, কেইবা নিজের নখ কাটাতে, আবার কারও আগমন হয়েছে লেজ পরিষ্কার করতে। আজকে তারা বিশেষ অতিথি বলে কথা। তাদের জন্য তাই বিশেষ ট্রিটমেন্টের ব্যবস্থা রয়েছে এদিন। কারণ বিশ্বজুড়ে এদিন যে পালিত হচ্ছে লাভ ইওর পেট ডে' হিসেবে। 

আরও পড়ুন: উত্তম কুমার পুরস্কার আর পাওয়া হল না, নিভৃতেই চলে গেলেন মহানায়কের সহঅভিনেতা

পৃথিবীতে সব কিছুরই দিবস রয়েছে। ভালবাসার দিন যেমন রয়েছে আলাদা করে রয়েছে, তেমনি বাড়ির প্রিয় পোষ্যটির জন্য রয়েছে 'লাভ ইওর পেট ডে'। আর এই বিশেষ দিনে এক অভিনব উদ্যোগ নিলেন প্রখ্যাত পশু চিকিৎসক কুণাল চক্রবর্তী।  পেট ডে উপলক্ষ্যে এদিন বিনামূল্যে গৃহপালিত পশুদের প্রতিষেধক দেওয়ার ব্যবস্থা করেছিলেন তিনি।

 

 

২০ বছর আগে পোষ্যদের চিকিৎসার জন্য এই ক্লিনিক খুলেছিলেন  চিকিৎসক কুণাল চক্রবর্তী। তার ২০ তম বর্ষপূর্তীতে পোষ্যদের জন্য হরেকরকম ব্যবস্থা। কেউ এসেছিল নখ কাটতে, কেউবা নিজের শরীরের লোম পরিষ্কার করতে, সকলের জন্যই এদিন উপলব্ধ ছিল বিনামূল্যে চিকিৎসা। 

আরও পড়ুন: করোনার সাথে ভারতে এবার সোয়াইন ফ্লু আতঙ্ক, বন্ধ হল তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার দফতর

পোষ্যদের নিয়ে এদিন রীতিমত ভিড় জমে গিয়েছিল চুঁচুড়ার ময়নাডাঙ্গায়  চিকিৎসক কুণাল চক্রবর্তীর এই ক্লিনিকে। দেশি কুকুর থেকে বিলিতি কুকুর, সকলেরই এদিন অবাধ প্রবেশ ছিল  ডাক্তারবাবুর ক্লিনিকে। এমনকি সূদূর কল্যাণী থেকে নিজের প্রিয় পার্শি বিড়ালকে নিয়ে উপস্থিত হয়েছিলেন এক গৃহবধূ। শতাধিক পোষ্যের এদিন বিনামূল্যে চিকিৎসা করেন ডাক্তারবাবু।

 

 

কেবল চিকিৎসা নয় গৃহপালিত এই জন্তুদের জন্য ছিল পেটপুজোর ব্যবস্থাও। চিকিৎসক নিজেই আয়োজন করেছিলেন ভুড়িভোজের। পোষ্যের দল এক অপরকে চোখের দৃষ্টিতে মেপে নিলেও চিকিৎসকের দেওয়া চিকেন আর ভাত খেল তাড়িয়, তাড়িয়েই। সব মিলিয়ে এক অন্যরকম উৎসবের ছবি ধরা পড়ল  চুঁচুড়ার ময়নাডাঙ্গায়।