পড়াশোনায় ভাল ছিল মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী খুড়তুতো ভাই। পরীক্ষায় ভাল ফল করার সম্ভাবনা ছিল তাঁর। আর সেই ঈর্ষা থেকেই হামলা চালিয়ে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর কান কেটে নিল তার খুড়তুতো ভাইরা। 

চাঞ্চল্যকর এমনই অভিযোগ উঠেছে উত্তর দিনাজপুরের ইটাহার থানার বানবোল এলাকায়। গুরুতর আহত অবস্থায় রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসাধীন রয়েছে ওই ছাত্র। হাসপাতালেই তার পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন- মাধ্যমিকের দ্বিতীয় দিনেই অসুস্থ, হাসপাতালে বসে পরীক্ষা দিল ছাত্রী

আরও পড়ুন- মানবিক উদ্যোগ, টাকা জমিয়ে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের সাহায্য লটারি বিক্রেতার

আকবর আলি নামে ওই ছাত্রের পরিবারের অভিযোগ, পড়াশোনায় ভাল হওয়ায় বরাবরই তাকে ঈর্ষা করত খুড়তুতো ভাইরা। দুই পরিবারের মধ্যে শরিকি বিবাদও ছিল। গত শুক্রবার আচমকাই আকবরের খুড়তুত দুই ভাই আনার আলি এবং মিনার আলি তার বাবা মহিবুর আলির উপর অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। হামলায় মাথা ফেটে যায় ওই মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর বাবার। বাবাকে বাঁচাতে ঘর থেকে বেরিয়ে আসতে তার উপরও হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। ধারাল অস্ত্রের আঘাতে কান কেটে যায় আকবরের। 

ঘটনার পরই ওই মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী এবং তার বাবাকে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আকবরের অবস্থা স্থিতিশীল হলেও তাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হয়নি। তাই সেখানেই আকবরের মাধ্যমি পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। 

ঘটনায় পরই ইটাহার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। যদিও আকবরের দুই খুড়তুতো ভাইই আপাতত পলাতক। তাদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।