সরস্বতী পুজোয় নতুন শাড়ি না পেয়ে অভিমানে আত্মঘাতী হল ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া থানার খাশবালান্ডা অঞ্চলের রাখালপল্লীতে।  হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। বছর সোলো ওই ছাত্রীর নাম  সুকন্যা সাধু।  ইতিমধ্য়েই পুলিশ এই ঘটনায় তদন্তে নেমেছে।

আরও পড়ুন, মুর্শিদাবাদে সিএএ বিরোধী প্রতিবাদে চলল গুলি, তৃণমূলের দিকে অভিযোগ কংগ্রেসের  

সূত্রের খবর, ওই ছাত্রী এবছরের  হাড়োয়া সফিক আহমেদ গার্লস স্কুলের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। হাড়োয়া রাখালপল্লী কলোনি পাড়া এলাকায় বাড়ি তাঁর বাড়ি।  এদিকে পরীক্ষার দোরগোড়ায় শখ করে সে, পরিবারের কাছে সরস্বতী পুজোয় নতুন শাড়ি চেয়েছিল।  সেই শাড়ি দিতে দেরি করায় বাবা-মায়ের সঙ্গে রীতিমত অশান্তি বেঁধে যায় ওই ছাত্রীর।  সেই অভিমানে নিজের ঘরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে মাধ্যমিকের ওই পরীক্ষার্থী। মঙ্গলবার রাত্রে গলায় শাড়ির ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।হাড়োয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার মৃত বলে ঘোষণা করেন। ওই ছাত্রীর বাবা পেশায় দর্জি, নাম বাপি সাধু । মেয়ে শাড়ি চেয়েছিল বারবার চাওয়ায় একটু বকাবকি করেছিলেন। মঙ্গলবার রাত্রে প্রতিদিনের মতো খেয়ে ঘুমাতে যান তারপর বাড়ির লোকজন ডাকাডাকি করলে কোনো সাড়াশব্দ না মেলায় হাড়োয়া থানায় খবর দেন ।তারপর ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাড়োয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন, অজান্তেই গ্রামে হাতির হানা, বাঁকুড়ায় বলি গৃহবধূ সহ ২ 

সরস্বতী পুজোয় নতুন শাড়ি না পেয়ে কি আত্মহত্যা না এর পিছনে অন্য কোন রহস্য লুকিয়ে রয়েছে এ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এখনও  ঠিক কি কারণে আত্মহত্যা করেছেন তা না জানার জন্য়, এই ঘটনার একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে। পুলিশের তরফে মৃত দেহটি ময়না তদন্তের জন্য বসিরহাট জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।