আগেই বলেছিলেন, রবিবার একুশের জুলাইয়ের মঞ্চ থেকে ইভিএম বিরোধিতা নিয়ে সুর আরও চড়ালেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। স্পষ্ট ঘোষণা করে দিলেন, ভবিষ্যতে পঞ্চায়েত নির্বাচনের মতো পুরভোটও হবে ব্যালট পেপারেই। 

আরও পড়ুন- তৃণমূলের মেগা ফ্লপ শো, একুশে জুলাইয়ের সভাকে তীব্র কটাক্ষ দিলীপের

এ বারের একুশে জুলাই সমাবেশের মূল দাবিই ছিল, 'ইভিএম নয়, ব্যালট ফেরাও'। লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি-র একপেশে ফল এবং বিরোধীদের বিপর্যয়ের জন্য রবিবারও ইভিএম-কেই দুষেছেন মমতা। তৃণমূলনেত্রী বলেন,ভোটের ফলে কত আসন পাবেন, বিজেপি নেতারা তা কীভাবে আগে থেকে বলে দিলেন? এই বিষয়টি এখনও তাঁর কাছে রহস্য বলেই মন্তব্য করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই সঙ্গে তিনি স্পষ্ট করে দেন, লোকসভা নির্বাচবনের ফলে তিনি এখনও মেনে নিতে পারছেন না। 

আরও পড়ুন- প্রসেনজিৎ, ঋতুপর্ণাদের ডেকে বিজেপিতে যোগ দিতে বলছে ইডি, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ মমতার

তৃণমূলনেত্রী বলেন, 'কী হল, কেমন করে এল, এখনও মিস্ট্রি। যা সিট বলেছিল কীভাবে পেল! আমেরিকা, ইউকে, ইউরোপের দেশ, নেদারল্যান্ডস, ফ্রান্স, জার্মানি, জাপান, সব দেশে ইভিএম বাতিল হয়ে ব্যালট ফিরেছে। ইভিএমে আগে থেকে সব ফিট করে দেয়। আমাদের সরকারের যত নির্বাচন হবে, সব হবে ব্যালটে। পঞ্চায়েতের মতো পুরভোটও ইভিএমে করানোর জন্য আমরা রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে বলব।'  

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য রাখার আগেই ইভিএম বাতিলের দাবিতে সরব হন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ইভিএমে ভোট হলেই বিজেপি জেতে, আর ব্যালটে যেখানে ভোট হয় সেখানেই হারে। উদাহরণস্বরূপ লোকসভার নির্বাচনের ফলপ্রকাশের ঠিক পরেই কর্ণাটকের পুরভোটে বিজেপি-র বিপর্যয়ের কথতুলে ধরেন। 

ইভিএম নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আপত্তির পাল্টা জবাব দিয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও। তিনি বলেন, 'ইভিএমে ভোটে জিতেই উনি ক্ষমতায় এসেছেন। যত দিন ভোটে জিতেছেন, ততদিন ইভিএম ঠিক ছিল। আমরা তো ব্যালটে পঞ্চায়েত ভোটে লড়েছি, কিন্তু ভোট করতে না দিলে কী করা যাবে? তা সত্ত্বেও আমরা সাত হাজার আসনে জিতেছি।'