মিঠু সাহা, শিলিগুড়ি:  প্রাকৃতিক দুর্যোগ চলছিল গত কয়েকদিন। রাতভর মুষলধারায় বৃষ্টির পর এবার ধস নামল পাহাড়ে। জলের তলায় চলে গিয়েছে শিলিগুড়ি শহরের একাধিক ওয়ার্ড। জল জমেছে শহর লাগোয়া বিস্তীর্ণ এলাকায়। বিপর্যস্ত জনজীবন।

আরও পড়ুন: সেতু ধসে পড়ে মর্মান্তিক মৃত্যু, ঝুলছে রেললাইন, রাতভর বৃষ্টির তাণ্ডবে বিচ্ছিন্ন উত্তরবঙ্গ

আকাশের মুখভার, বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হচ্ছিল উত্তরবঙ্গে। বুধবার, বৃহস্পতি ও শুক্রবার অতিভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর । হলুদ সতর্কতা জারি করা হয়েছে দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহার জেলায়। কিন্তু ঘটনা হল, সোমবার রাতেই নামল তুমুল বৃষ্টি। ফলে ১, ৪৭, ৩১ নম্বর-সহ শিলিগুড়ি শহরের একাধিক ওয়ার্ডের বিভিন্ন জায়গায় জল জমেছে। শহর লাগোয়া মহকুমা ও ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের অধীনস্থ বিস্তীর্ণ এলাকার অবস্থাও তথৈবচ। জল বেড়েছে মহানন্দী নদীতেও।

আরও পড়ুন: দিঘায় ধরা পড়ল ৮০০ কেজির বিরল মাছ, দাম উঠল ৩২০০০ টাকা

শিলিগুড়ি শহর থেকে দার্জিলিং যাওয়ার পথে পঞ্চনই নদীর ওপর সেতুর একাংশ ধসে গিয়েছে। অতি বৃষ্টিতে খাস শিলিগুড়ি শহরের পাতি কলোনী এলাকায় অস্থায়ী লোহার পুলটিরও ক্ষতি হয়েছে যথেষ্টই। ধস নেমেছে দুধিয়া থেকে পানিহাটি যাওয়ার রাস্তায়ও। ফলে সকাল থেকে ব্যাহত যান চলাচল। আতঙ্কে ঘুম উড়িয়েছে নদীর তীরবর্তী এলাকার বাসিন্দাদের। শিলিগুড়ির মহকুমাশাসক সুমন্ত রায় বলেন, প্রবল বৃষ্টির কারণে কিছু এলাকায় জল জমেছে। তবে বৃষ্টির থামার পর জল নামছেও দ্রুতগতিতে। পরিস্থিতি সামাল দিতে মহানন্দ ব্য়ারেজের দুটি লকগেটও খুলে দেওয়া হয়েছে।