অর্জুন সিংয়ের মাথা ফাটার ঘটনায় ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনারের পাশেই দাঁড়াল রাজ্য প্রশাসন। নবান্ন থেকে জানিয়ে দেওয়া হল, রবিবার কাঁকিনাড়ায় পরিকল্পিতভাবে গন্ডগোল পাকানোর যে ছক কষা হয়েছিল, ব্যারাকপুরের সিপি মনোজ ভার্মার নেতৃত্বে তা ঠান্ডা মাথায় সামাল দিয়েছে পুলিশবাহিনী। কাঁকিনাড়ায় অশান্তির ঘটনা নিয়ে এ দিন এমনই দাবি করেছেন এডিজি আইনশৃঙ্খলা জ্ঞানবন্ত সিং। 

মাথা ফাটার পরে অর্জুন সিং দাবি করেছিলেন, ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনার মনোজ ভার্মার মারেই তাঁর আঘাত লেগেছে। যদিও এ দিন অর্জুনের সেই দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন এডিজি আইনশৃঙ্খলা। তাঁর পাল্টা দাবি, হয় পড়ে গিয়ে নয়তো বিজেপি সমর্থকদের ইটের আঘাতেই মাথা ফাটে অর্জুনের। 

আরও পড়ুন- হিংসা দেখে ব্যথিত, প্রথমবার মুখ খুলেই রাজ্যের উপরে চাপ বাড়ালেন ধনখড়

অর্জুন পুলিশকে দায়ী করলেও এ দিন পাল্টা তাঁর বিধায়ক পুত্র পবন সিংকেই কাঠগড়ায় তুলেছে নবান্ন। জ্ঞানবন্ত সিংয়ের দাবি, কাঁকনাড়ার সার্কাস মোড়ের কাছে রবিবার পবনের নেতৃত্বেই অবরোধ চলছিল। পুলিশ কমিশনার নিজে সেখানে গিয়ে অবরোধ তুলে নেওয়ার অনুরোধ করলেও তা তোলা হয়নি। উল্টে পুলিশকে লক্ষ করে ইটবৃষ্টি শুরু হয় বলেই অভিযোগ। এ দিন রাজ্য পুলিশের অন্যতম ওই শীর্ষকর্তা আরও অভিযোগ করেন, আশেপাশের বাড়ির ছাদ থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমাও ছোড়া হয়েছে রবিবার। 

আত্মপক্ষ সমর্থনে ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনারের শূন্যে গুলি চালানোকেও সমর্থন করেছেন এ়ডিজি আইনশৃঙ্খলা। তাঁর বরং অভিযোগ, সামান্য পার্টি অফিস দখল নিয়ে হওয়া গন্ডগোলের জেরে যেভাবে পুলিশকে ঘিরে ধরে আক্রমণ করা হয়েছিল, তাতে পরিকল্পিতভাবে গন্ডগোল পাকানোর চেষ্টা স্পষ্ট।