জলপাইগুড়িতে, বেপরোয়াভাবে ছুটে আসা গাড়ির ধাক্কায় ঘটে গেলে বড় সড় দুর্ঘটনা। জাইলো গাড়ির পরপর ধাক্কায় বিকট শব্দে চাঞ্চল্য় ছড়াল রবিবার রাতে। ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারালেন  সুমিত লামা। ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ি মহিলা থানার সামনে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন ১ জন এবং  গুরুতরভাবে জখম হয়েছেন আরও ২ জন। আপাতত ৩ জন কেই ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ইতিমধ্য়েই ওই জাইলো গাড়ির চালককে আটক করেছে পুলিশ। শুরু হয়েছে তদন্ত।

আরও পড়ুুন, জেএনইউ-তে হামলা গণতন্ত্রের লজ্জা, টুইটারে তীব্র ক্ষোভ মমতার

রবিবার রাতে হঠাৎ বেপরোয়াভাবে তীব্র গতিতে ছুটে আসে একটি দুধসাদা রঙের জাইলো গাড়ি। তারপরেই ৩০০ মিটার ব্যাবধানে পর পর  ধাক্কা মারে ওই জাইলো গাড়িটি। স্বাভাবিকভাবে বিকট আওয়াজ পেয়ে শীতের রাতে, রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়াল জলপাইগুড়িতে। এমনিতেই গত কয়েকদিন যাবৎ আবহাওয়া খারাপ থাকায়, ঘন কুয়াশায় ঢেকেছে জলপাইগুড়ি। তার উপর সেই মুহূর্তে একই রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন সাইকেল আরোহি সুমিত লামা। তারপরই দ্রুতবেগে ছুটে আসা জাইলো গাড়িটি  সুমিত লামাকে সজোরে ধাক্কা মারে। ঘটনাস্থলেই মারা যান সুমিত। 

আরও পড়ুন, অনুব্রতর আন্দোলনে ব্রাত্য শতাব্দী, আমন্ত্রণই পাচ্ছেন না বীরভূমের সাংসদ

পুলিশি তদন্তে উঠে এসেছে, জাইলো গাড়িটি শুধু একবার নয় একাধিকবার ধাক্কা মারে। গাড়ির বেগ এতটাই ছিল যে, যার ফলে রোড ডিভাইডারের এক অংশও ভেঙে গিয়েছে। হুড়মড়িয়ে ভেঙে পড়েছে রাস্তার ল্য়াম্প পোস্ট।অপরদিকে, দুর্ঘটনার বিকট শব্দে পেয়ে ছুটে আসেন স্থানীয়রা। খবর দেওয়া হয় দমকলে। গাড়িতে আটক ১ জন কে দড়জা কেটে উদ্ধার করে দমকল বাহিনী। পুলিশি জেরায় জানতে পারা গিয়েছে, জাইলো গাড়ির চালক মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছিলেন। এদিকে রাজ্য় পুলিশ প্রশাসনের তরফে বারবার 'সেফ ড্রাইভ সেফ লাইফ' নিয়ে কড়া সর্তকতা জারি করা সত্ত্বেও উঠে আসছে একের পর এক পথ-দুর্ঘটনা।