বন্ধুদের সঙ্গে বিয়েবাড়িতে এসেছিলেন তিনি, আর বাড়িতে ফেরা হল না। চারদিন পর পুকুর থেকে এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করল পুলিশ। পরিবারের লোকেদের দাবি, তাঁকে খুন করা হয়েছে। দক্ষিণ ২৪ পরগণার বারুইপুরের ঘটনা।

আরও পড়ুন: 'অত্যাচারে ঘরছাড়া স্ত্রী', বৃদ্ধা মা-কে কুপিয়ে খুন করল ছেলে

আরও পড়ুন: পরনে শুধু অন্তর্বাস, গৃহবধূর অর্ধনগ্ন দেহ মিলল দেওরের বাড়িতে

মৃতের নাম রবিন সিং। দক্ষিণ ২৪ পরগণার বাসন্তীর গাগরামারী বাড়ি বছর আঠেরোর ওই যুবকের। গত বুধবার বন্ধুদের সঙ্গে বারুইপুরের জয়তলা গ্রামে বিয়েবাড়ি এসেছিলেন রবিন। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, রাতে খাওয়া-দাওয়ার পর বিয়েবাড়ি থেকেই উধাও হয়ে যান তিনি। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও আর তাঁর সন্ধান পাওয়া যায়নি। সেদিন রবিনের নামে নিখোঁজ ডায়েরিও করা হয়। শেষপর্যন্ত রবিবার জয়াতলা গ্রামেই মিলল ওই যুবকের মৃতদেহ।

আরও পড়ুন: রোগ লুকিয়ে বিয়ের শখ, হালিশহরে এইচআইভি আক্রান্ত বরকে আটক করল পুলিশ

জানা গিয়েছে, রবিবার সকালে জয়তলা গ্রামে একটি পুকুরের রবিনের মৃতদেহ ভেসে ওঠে। ঘটনাটি নজরে পড়তেই বারুইপুর থানায় খবর দেন স্থানীয় বাসিন্দারা। পুকুর থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। কীভাবে মারা গেলেন ওই তরতাজা যুবক? তা এখনও স্পষ্ট নয়। বারুইপুর থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতের পরিবারের লোকেরা।