আর্থিক লেনদেন  বা অন্য কোনও প্রয়োজনে আর পোস্ট অফিসে যেতে হবে না। বরং পোস্ট অফিসের কর্মীরাই পৌঁছে যাবেন গ্রাহকদের বাড়িতে। করোনা সংক্রমণ রুখতে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায় নয়া পরিষেবা চালু করল ডাক বিভাগ।

আরও পড়ুন: লাল জোনকে ভেঙে আরও ৩ ভাগ, লকডাউনে অর্থনীতি চাঙ্গা করতে মরিয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

করোনা সতর্কতায় দেশজুড়ে লকডাউন চলছে। চতুর্থ দফায় মেয়াদ কি আরও বাড়বে? তেমনই ইঙ্গিত মিলেছে খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভাষণে। অফিস-স্কুল-কলেজ, এমনকী আদালতও বন্ধ।  তবে পোস্ট অফিস ও ব্যাঙ্ক কিন্তু খোলা থাকছে রাজ্যের সর্বত্রই। টাকা তোলা কিংবা জমা দেওয়ার জন্য ভিড় করছেন গ্রাহকরা। আর তাতে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কাও বাড়ছে। তাহলে উপায়? দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায় এনেবেল পেমেন্ট সিস্টেম নামে একটি নয়া পরিষেবা চালু করেছে ডাক বিভাগ।

আরও পড়ুন: বুধবার থেকে কলকাতায় চালু বাস পরিষেবা, কোন কোন রুটে চলবে জানুন বিস্তারিত

আরও পড়ুন: সামাজিক দূরত্ব মেনে চলবে মেট্রো, কীভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছে রেল

ডাক পরিষেবা তো বটেই, নয়া এই ব্যবস্থায় বাড়িতে বসেই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট একশো থেকে দশ হাজার টাকা পর্যন্ত তুলতে পারবেন গ্রাহকরা। শুধু তাই নয়, যাঁরা পোস্ট অফিস থেকে পেনশনের টাকা তোলেন, আবেদন করলে তাঁদের বাড়িতে গিয়ে টাকা পৌঁছে দেবেন ডাক বিভাগের কর্মীরাই। কীভাবে মিলবে এই পরিষেবা? পোস্ট অফিসে গিয়ে নাম নথিভুক্ত করতে হবে সংশ্লিষ্ট এলাকার বাসিন্দারা। ব্যবহার করা যাবে মোবাইল অ্যাপস।  জানা গিয়েছে, ক্যানিং সাব পোস্ট অফিসে  অধীনস্থ ৪৭টি শাখায় এনেবেল পেমেন্ট সিস্টেম চালু হয়ে গিয়েছে। পরিষেবা পাচ্ছেন কমপক্ষে ৬০ জন গ্রাহক। মোবাইল ভ্যান দিয়ে বিভিন্ন এলাকায় ঘুরছেন ডাক বিভাগের কর্মীরা।