সুখের স্মৃতি বদলে গেল দুঃখে। প্রেমিকের সঙ্গে ঘর বাঁধার আগেই খুলে গেল জীবনের আগল। মর্মান্তিক পরিণতি হল নাবালক প্রেমের। আবেগে প্রেমিকের দেওয়া বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হল নাবালিকা।

সংগঠনের পদে নেই শোভন,কার কাছে ফোঁটা নেবেন ব্য়ক্তিগত বিষয় বললেন দিলীপ

হিন্দি সিনেমার প্রেম কাহিনীকে হার মানাবে এই স্বল্প বয়সী প্রেম। যেখানে প্রেমিককে না পাওয়ার আশঙ্কায় নিজের জীবন উজার করে দিল নাবালিকা। অভিযোগ,নাবালিকা প্রেমিকার হাতে বিষ তুলে দিয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনা দিয়েছে প্রেমিক। যার জেরে মনিকা প্রামাণিক (১৪) নামে ওই নাবালিকা আত্মঘাতী হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে, পূর্ব বর্ধমানের থানার নিমদহ পঞ্চায়েতের চাঁদপাড়া গ্রামে। 

পরিবার সূত্রে খবর, ঘটনার দিন ভাইফোঁটা উপলক্ষে মনিকার বাবা-মা  মামার বাড়ি গিয়েছিলেন। তখনই বান্ধবীর বাড়ি যাচ্ছি বলে বেরিয়ে যায় ওই নাবালিকা। সন্ধ্যে নাগাদ বাড়ি ফিরে বিষ খায় সে। বিষের জ্বালা সহ্য করতে না পেরে চলে আসে সকলের সামনে। তখনই স্বীকার করে প্রেমিকের কিনে দেওয়া বিষ খেয়েই এই অবস্থা হয়েছে তাঁর। বেগতিক দেখে তড়িঘড়ি তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যায় বাড়ির লোকজন। কিন্তু হাসপাতাল নিয়ে যাবার পথেই মৃত্যু হয় মনিকার । 

কাউন্সিলর শোভন থেকেও নেই, অতীনকে নোংরা দেখালেন রত্না

বেশ কিছুদিন ধরে পূর্বস্থলী জামালপুর এর বাসিন্দা শৌভিক বারুইয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল মনিকার। কিন্তু শেষের দিকে এই সম্পর্ক থেকে সরে আসতে চাইছিল শৌভিক। পরিবারের দাবি, গতকাল দুজনের মধ্যে দেখা হওয়ার পরই অশান্তি হয়। তারপরই মনিকার হাতে বিষ তুলে দেয় শৌভিক। এমনই দাবি মৃত নাবালিকার পরিবারের। মৃত্যুর আগে এমনই পরিবারকে জানিয়েছিল নাবালিকা। ইতিমধ্যেই পূর্বস্থলী থানায় অভিযোগ করেছে নাবালিকার পরিবার। ঘটনায় দুজনকে আটক করেছে পূর্বস্থলী থানার পুলিশ। চলছে জিজ্ঞাসাবাদ।