শুভজিৎ পুততুণ্ড, বারাসাত- নিম্নচাপের কারনে কয়েক দিন ধরে বৃষ্টির বিরাম নেই দক্ষিণবঙ্গে। টানা বৃষ্টির জেরে দুর্ঘটনায় মৃত্যু ঘটনা ঘটল বসিরহাটে। উত্তর ২৪ পরগনায় বিদ্যাধরী নদীর বাঁধ ভেঙে গ্রামে ঢুকেছে নোনা জল। ঘরের মধ্য়েও নোনা জল ঢুকে দুর্ভোগের শিকার সাধারন মানুষ । এই অবস্থায় বসিরহাটের হাড়োয়া থানায় মোহনপুর গ্রামে দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল বছর চুয়ান্নর এক ব্যক্তির। ঘরে নোনা জল ঢোকায় পা পিছলে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি পরিবারের।

আরও পড়ুন-হাল্কা বৃষ্টিতেই দুর্ভোগ চরমে, হাওড়ায় জল জমল একাধিক রাস্তায়

জানাগেছে, বিদ্য়াধরী নদীর বাঁধ ভেঙে ঘরে নোনা জল ঢুকেছে। এই অবস্থায় ঘরের জিনিসপত্র সরাতে ব্যস্ত ছিলেন মোহনপুর গ্রামের বাসিন্দা নিরঞ্জন পাত্র। সেই আচমকাই পা পিছলে পড়ে যান তিনি। গুরুতর জখম অবস্থায় তাঁকে বসিরহাট জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতী হওয়ায় কলকাতায় আরজি কর হাসপাতালে রেফার করা হয় তাঁকে। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে মৃত্য়ু হয় নিরঞ্জন পাত্রের। তবে দুর্ঘটনায় মৃত্যু কিনা তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে হাড়োয়া থানার পুলিশ।

আরও পড়ুন-কালীঘাটে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনে শুটআউট, লুটিয়ে পড়লেন এক পুলিশকর্মী

অন্য়দিকে, টানা বৃষ্টির কারনে মিনাখাঁ ও হাড়োয়া বিদ্যাধরী নদীর জলস্তর বেড়েছে। ফলে জলের তোড়ে নদীবাঁধ সমস্যা দেখা দিয়েছে নদী তিরবর্তী গ্রামগুলিতে। চাষের জমিতে নোনা জল ঢুকে নষ্ট হচ্ছে সবজি, ধান, পাট। পাশাপাশি মেছোভেরিতেও জল ঢুকে মাছ চাষে বড়সড় ক্ষতির আশঙ্কা করছেন চাষিরা।