লকডাউনের দিনেই অঘটন। রাজ্য়ের মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনে চলল গুলি। তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল কালীঘাট এলাকায়। গুলিতে জখম হয়েছেন এক পুলিশকর্মী। তাঁকে নিয়ে  এসএসকেএমে ভর্তি করা হয়েছে। দ্রুততার সঙ্গে নিরাপত্তা বেষ্টনী আরও শক্তিশালী করা হয়েছে। কিন্তু কীভাবে গুলি চলল, তা জানতে ইতিমধ্য়েই তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন, দূরত্ব-বিধি মেনে চলবে কি মেট্রো-লোকাল ট্রেন, করোনাকালে জল্পনা তুঙ্গে


পুলিশি সূত্রে খবর, বুধবার রাতে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনের কিয়স্কে কর্মরত ছিলেন দীনেশ কর্মকার নামে এক নিরাপত্তা রক্ষী। বৃহস্পতিবার সাতসকালে তাঁর ডিউটি বদলের সময় আচমকাই গুলির শব্দ শুনতে পাওয়া যায়। একেই লকডাউন, তাই রাস্তাঘাট ফাঁকা থাকায় বহুদূর অবধি ছড়িয়ে পড়ে সেই আওয়াজ।   লকডাউনের নিস্তব্ধতা ভেঙে মুহূর্তেই তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে কালীঘাট এলাকায়। এদিকে গুলি আওয়াজ পেয়েই দৌড়ে যান অন্যান্য কর্তব্যরত কর্মীরা। ততক্ষণে দীনেশ কর্মকার নামের ওই কর্মী  রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েছেন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে নিয়ে  এসএসকেএমে ভর্তি করা হয়।

আরও পড়ুন, বিয়ের জন্য পাত্রর মা সেজে ফোনে কথা বলত বাড়ির পরিচারিকা, বড়সড় প্রতারণা চক্রের হদিশ পেল পুলিশ

এরপর আর দেরি করা হয়নি। খুব দ্রুততার সঙ্গে আহত ওই পুলিশ কর্মীকে নিয়ে অপারেশন রুমে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে অস্ত্রোপচার করে দীনেশ কর্মকারের শরীর থেকে গুলি বের করে নেওয়া হলেও  তাঁর শারীরিক অবস্থা উদ্বেগের। এই মুহূর্তে  তাঁকে পর্যবেক্ষণে রেখেছেন চিকিৎসকরা। এদিকে সাতসকালে কী কারণেই বা এমন ঘটনা ঘটল তা ইতিমধ্যেই খতি দেখা শুরু হয়েছে। কীভাবেই বা গুলি চলল, জানতে তদন্তে নেমেছেন দায়িত্ব প্রাপ্ত অফিসাররা। মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। এই ঘটনার পরও আরও একুটুকু দেরী না করে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির নিরাপত্তা বেষ্টনী আরও শক্তিশালী করা হয়েছে। 

 

 

 

কোভিড রোগী ভর্তিতে ৫০ হাজার টাকার বেশি নেওয়া যাবে না, নয়া নির্দেশিকা জারি রাজ্যের

ভয় নেই করোনায়, মেডিক্য়ালের ৪ তলার কার্নিশে পা দোলাচ্ছে রোগী

ভুয়ো টেস্টের ফাঁদে পড়ে করোনায় মৃত্যু এক ব্য়াক্তির, গ্রেফতার প্রতারণা চক্রের ৩ জন

করোনায় ফের ১ এসবিআই কর্মীর মৃত্য়ু, মৃতের পরিবারকে চাকরি দেওযার দাবিতে ব্যাঙ্ক কর্মীরা

   পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক-কলকাতা মেডিকেল, করোনা রুখতে প্রস্তুতি তুঙ্গে