করোনা থেকে বাঁচতে বারবার হাত ধোয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। আর তাতেই ঘটেছে বিপত্তি। বাজার থেকে কার্যত উধাও হয়ে দিয়েছে স্যানিটাইজার! পরিস্থিতি মোকাবিলায় এবার আসরে নামল রায়গঞ্জের একদল স্কুল পড়ুয়া। ঘরোয়া পদ্ধতিতে স্যাটিজাইটার তৈরি করছে তারা।

আরও পড়ুন: করোনা সন্দেহে তমলুকে আটক দুই ফরাসি পর্যটক, হাওড়ায় হাসপাতালে ভর্তি বাবা-ছেলে

আরও পড়ুন: আসল বলে নকল মাস্ক বিক্রি, কীভাবে চলছে জাল কারবার

যতদিন যাচ্ছে, আতঙ্ক ততই বাড়ছে। করোনা ভাইরাস ঢুকে পড়েছে এ রাজ্যেও। আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে কলকাতায়। শরীরের সংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি  আমলার ছেলে। শুধু তাই নয়, ইংল্যান্ড থেকে ফিরে স্বাস্থ্য পরীক্ষা না করিয়ে ওই তরুণ নাকি ঘুরে বেড়িয়েছিলেন শহরের বিভিন্ন জায়গায়! অভিযোগ তেমনই। ফলে পরিস্থিতি আরও ঘোরালো হয়ে ওঠেছে। রাজ্যের সর্বত্রই এখন মাস্ক আর স্যানিটাইজারের চাহিদা তুঙ্গে। কিন্তু যোগান দেবে কে! চলছে দেদার কালোবাজারি। এই যখন পরিস্থিতি, তখনই উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জে এক অভিনব কর্মযজ্ঞে সামিল হল একদল স্কুল পড়ুয়া। বাজার থেকে আইসোপ্রোপাইল অ্যালকোহল, অ্যালোভেরা জেলের মতো বিভিন্ন উপকরণ সংগ্রহ করেছে তারা। চলছে ঘরোয়া পদ্ধতিতে স্যানিজাইটার তৈরির কাজ। 

জানা গিয়েছে, যারা এই স্যানিটাইজার তৈরি করছে, তারা সকলেই রায়গঞ্জে শহরের এক বেসরকারি স্কুলে পড়ুয়া। পড়ুয়ারা জানিয়েছে, সংবাদপত্র থেকেই ঘরোয়া পদ্ধতির সম্পর্কে জানতে পেরেছে তারা। সাহায্য নিয়েছে শিক্ষক ও বিশেষজ্ঞদেরও। এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সকলেই।